**TRY FREE HUMAN READABLE ARTICLE SPINNER/ARTICLE REWRITER**

কে আগে, সাকিব না তামিম?


কে আগে টি-টোয়েন্টি ফরম্যাটে প্রথম বাংলাদেশি হিসেবে ১ হাজার রানের মাইলফলক স্পর্শ করবেন। সাকিব আল হাসান নাকি তামিম ইকবাল। সাকিব আল হাসানের দরকার আর মাত্র ২১ রান আর তামিম ইকবালের দরকার ৫৮ রান।

ওয়ানডেতে সাকিব আল হাসান তামিম ইকবালের আগে এক হাজার রানের মাইলফলক স্পর্শ করেছেন। এখন টি-টোয়েন্টিতে কে করবেন এটি দেখার অপেক্ষায় সবাই।

টি-টোয়েন্টিতে সাকিব আল হাসান ৪৮ ম্যাচ খেলে করেছেন ৯৭৯ রান। তার ব্যাটিং স্ট্রাইক রেট ১২১.৬১ এবং তার ব্যাটিং গড় ২২.৭৭। টি-টোয়েন্টি ফরম্যাটে তার ৫টি হাফ সেঞ্চুরি রয়েছে। এক ম্যাচে সবোর্চ্চ ৮৪ রান করেছিলেন ২০১২ সালে শ্রীলঙ্কাতে অনুষ্ঠিত বিশ্বকাপে পাকিস্তানের বিপক্ষে।

নেদারল্যান্ডসের বিপক্ষে ব্যাট হাতে ২৬ রান পেলেই হতো। কিন্তু ব্যক্তিগত ৫ রানে নিজের উইকেট দিলেন সাকিব। এতে অপেক্ষা বাড়লো সাকিবভক্তদের। ব্যাট হাতে আর ২১ রান পেলে বাংলাদেশি ক্রিকেটার হিসেবে টি-টোয়েন্টিতে ১০০০ রানের তালিকায় ঢুকে যাবে সাকিব আল হাসানের নাম।

অপরদিকে টি-টোয়েন্টিতে তামিম ইকবাল ৪৭ ম্যাচ খেলে করেছেন ৯৪২ রান। তার ব্যাটিং স্ট্রাইক রেট ১১০.১৮ এবং তার ব্যাটিং গড় ২১.৯১। টি-টোয়েন্টি ফরম্যাটে তার ৪টি হাফ সেঞ্চুরি রয়েছে। এক ম্যাচে তামিম সবোর্চ্চ ৮৮ রান করেছিলেন ঘরের মাটিতে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে।

বুধবার নেদারল্যান্ডসের বিপক্ষে তিনি মাত্র ৫ রানের জন্য পুরনো রেকর্ডটি স্পর্শ করতে পারেননি। ওই ম্যাচে তিনি মাত্র ৫৮ বলে ৬টি চার ও ৩টি ছয় হাকিয়ে ৮৩ রানের ইনিংস সাজান।

যদিও সাকিবের ১ হাজার রানের মাইলফলকটি ছুতে তামিমের চেয়ে অনেক কম রান লাগে। কিন্তু বর্তমানে টি-টোয়েন্টি ফর্মের দিক থেকে তামিম সাকিবের চেয়ে এগিয়েই রয়েছেন। আর অন্যদিকে তামিম ওপেনিং ব্যাটসম্যান আর সাকিব আল হাসান মিডেল অর্ডার ব্যাটসম্যান। সেই দিক থেকে বিবেচনা করলে তামিমই এগিয়ে।

শুক্রবার টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে প্রথম রাউন্ডে নিজেদের দ্বিতীয় ম্যাচে আয়ারল্যান্ডে মুখোমুখি হবে বাংলাদেশ। সবার প্রত্যাশা আয়ারল্যান্ডে বিপক্ষে তামিম ইকবাল ও সাকিব আল হাসান দুইজনই এক হাজার রানের মাইলফলক স্পর্শ করতে সক্ষম হবেন। তবে দেখা যাক কে আগে করেন।

Source jagonews24

Post a Comment