ইডেনেই হবে ভারত-পাকিস্তান ম্যাচ


নানা নাটকীয়তার পর অবশেষে কলকাতার ইডেন গার্ডেনকেই নির্ধারণ করা হলো টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে ভারত-পাকিস্তান ম্যাচের ভেন্যু হিসেবে। ১৯ মার্চ হিমাচল প্রদেশের ধর্মশালার পরিবর্তে কলকাতার ইডেন গার্ডেনকেই শ্বাসরূদ্ধকর ম্যাচটির ভেন্যু হিসেবে ঘোষণা দিয়েছেন আইসিসি প্রধান নির্বাহী ডেভ রিচার্ডসন। দিল্লিতে আজ (বুধবার) বিকেলেই এ ঘোষণা দেন তিনি।

এর আগে পাকিস্তান নিরাপত্তা প্রতিনিধি দল ভারতের তাদের ক্রিকেটারদের নিরাপত্তা পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ করে গিয়ে সরকারের কাছে নেতিবাচক রিপোর্ট জমা দেয়। এরই পরিপ্রেক্ষিতে আইসিসির কাছে ধর্মশালার পরিবর্তে ম্যাচের ভেন্যু পরিবর্তনের আহ্বান জানায়। শেষ পর্যন্ত পাকিস্তানের আবেদন মঞ্জুর করে নিল আইসিসি।

ধর্মশালায় পাক-ভারত ম্যাচ যে হচ্ছে না, তা আগেই বোঝা গিয়েছিল। হিমাচল প্রদেশ প্রশাসন কোনভাবেই চাচ্ছিল না ম্যাচটি ধর্মশালায় হোক। এমনকি প্রদেশটির রাজ্য সরকার জানিয়ে দিয়েছে, তারা কোন নিরাপত্তাই দেবে না পাকিস্তান ক্রিকেট দলকে। গোর্খা সম্প্রদায় হুমকি দিয়েছিলম ধর্মশালার উইকেট খুঁড়ে ফেলার। এমন পরিস্থিতিতে ম্যাচ নিয়ে যখন অনিশ্চয়তা তৈরী হয়, তখন ইডেনকে তৈরি রাখার জন্য সিবিএ’র কাছে নির্দেশ এল বিসিসিআই থেকে।

সিএবি সূত্র আগেই জানিয়েছিল, তাদেরকে ফোন করে একথা জানিয়েছেন স্বয়ং বিসিসিআই প্রেসিডেন্ট শশাঙ্ক মনোহর। ভারত-পাকিস্তান ম্যাচ কি তাহলে কলকাতায় হবে? এই নিয়েই চলছিল জল্পনা। টি২০ বিশ্বকাপে এই হাই ভোল্টেজ ম্যাচ নিয়ে প্রথম থেকেই চলছিল নানা চাপানউতর। শেষ পর্যন্ত তার সুরাহা হল। শেষ পর্যন্ত কলকাতায় হচ্ছে এই ম্যাচ।

ম্যাচের ভেন্যু পরিবর্তণের কথা জানিয়ে দিয়ে ডেভ রিচার্ডসন বলেন, ‘নিরাপত্তা ইস্যুর কারণেই ম্যাচটির ভেন্যু পরিবর্তণ করা সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। বিষয়টা নিয়ে শঙ্কা তৈরী হয়েছিল মূলত হিমাচলের রাজ্য সরকার যখন ঘোষণা দিয়েছিল, তারা নিরাপত্তা দিতে পারবে না, তখনই সাধারণ মানুষের মধ্যে প্রতিক্রিয়া দেখা দেয় এ বিষয়ে। শেষ পর্যন্ত আমরাও বাধ্য হলাম ভেন্যু পরিবর্তণ করতে।’

আইসিসি-র ফিক্সচার অনুযায়ী কলকাতায় শিবির করবে পাকিস্তান দল। যেখানে দুটো অনুশীলন ম্যাচ খেলবে তারা। পশ্চিম বঙ্গ একাদশ ও শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধে। আজ বুধবার কলকাতা পৌঁছে যাওয়ার কথা ছিল আফ্রিদিদের। এখান থেকে ১৭ মার্চ ধর্মশালা উড়ে যাওয়ার কথা ছিল তাদের। যদি ম্যাচ কলকাতায় চলে আসে তাহলে ১৯ মার্চ ভারতের সঙ্গে খেলার পরই ২২ মার্চ নিউজিল্যান্ড ম্যাচের জন্য মোহালি উড়ে যাবে পাকিস্তান।

পিসিবি চেয়ারম্যান শাহরিয়র খান বলেন, ‘হিমাচল প্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী পুরো নিরাপত্তা দিতে পারবে না বলে জানিয়ে দিয়েছে। অন্যদিকে, ভারত সরকারের তরফেও আমাদের কোনও নিশ্চয়তা দেওয়া হয়নি। এরকম একটা পরিস্থিতির মধ্যে আমরা প্লেয়ারদের ওখানে খেলতে পাঠিয়ে ঝুঁকি নিতে পারব না।’

Source : jagonews24

Post a Comment