আইফোন বিতর্ক এবার যাচ্ছে ব্রুকলিনে


নিউ ইয়র্কে মাদকবিষয়ক মামলায় অ্যাপলকে আইফোন আনলক করতে বাধ্য করা হবে কিনা সেটি আগামী দুই সপ্তাহের মধ্যেই প্রকাশ করা হবে বলে জানিয়েছে যুক্তরাষ্ট্রের বিচার বিভাগ।

বহুল আলোচিত ক্যালিফোর্নিয়ার স্যান বার্নার্ডিনো হত্যাকাণ্ড মামলায় অ্যাপলের সহযোগিতা ছাড়াই আইফোন আনলক করে এফবিআই বন্দুকধারীর তথ্য পেয়েছে বলে জানায় যুক্তরাষ্ট্রের বিচার বিভাগ। আর তাই চলতি সপ্তাহে এ বিষয়টি নিয়ে দুই পক্ষের আইনি লড়াইয়ের ইতি ঘটল বলে জানিয়েছে রয়টার্স।

একই পদ্ধতিতে ব্রুকলিন মাদক মামলার আইফোনটিও আনলক করা হবে কিনা সে সম্পর্কে আইনজীবীরা কোনো মন্তব্য না করলেও, দেশটির আইন প্রয়োগকারী কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, তারা অ্যাপলের কোনো ডিভাইসে ‘অ্যাকসেস’ করতে পারেন না।

আইফোন এনক্রিপশনের ক্ষেত্রে অ্যাপলকে আইনগতভাবে বাধ্য করা উচিৎ হবে কিনা, তা ছিল যুক্তরাষ্ট্র সরকার ও অ্যাপলের এ আইনি লড়াইয়ের প্রধান বিষয়। এ লড়াইয়ে প্রযুক্তি খাতের বেশিরভাগ প্রতিষ্ঠানই অ্যাপলকে সমর্থন জানিয়েছিল। তাদের মতে, কর্তৃপক্ষের এমন পদক্ষেপ, ব্যবহারকারীদের নিরাপত্তাকে দুর্বল করে দেবে। অন্যদিকে, সরকারি কর্মকর্তাদের ভাষ্য ছিল, তারা আইফোনে ‘অ্যাকসেস’ করে তথ্য সংগ্রহ করতে পারছেন না বলে এ সংক্রান্ত সকল প্রকার তদন্ত ‘পঙ্গু’ হয়ে যাবে।

ফেব্রুয়ারি মাসে, ব্রুকলিনের ফেডারেল ম্যাজিস্ট্রেট জেমস অরেন্সটেইন এই মাদক মামলার রায়ে জানিয়েছিলেন, ‘অল রিটস অ্যাক্ট’-এর অধীনে বিচার বিভাগ অ্যাপল-কে আইফোন আনলকে বাধ্য করতে পারবে না।

সোমবার ক্যালিফোর্নিয়ার শীর্ষ ফেডারেল প্রসিকিউটর এইলেন ডেকের এক বিবৃতিতে জানান, আইফোনের তথ্য উদঘাটনে তদন্তকারীরা ‘তৃতীয় পক্ষের’ সহযোগিতা পেয়েছেন। তবে তারা কারা তা স্পষ্ট করেননি তিনি।

এর পরই মঙ্গলবার এক সরকারী আইনজীবী জানিয়েছেন, এপ্রিলের ১১ তারিখ ব্রুকলিন মামলায় অ্যাপলের সহযোগিতা গ্রহণ করা হবে কিনা সে সম্পর্কে রায় দেওয়া হবে। তবে, যুক্তরাষ্ট্র সরকার ব্রুকলিন মামলার কোনো প্রকার তথ্য প্রকাশ করেনি। অপরদিকে অ্যাপলের একজন মুখপাত্র এ সম্পর্কে কোনো প্রকার মন্তব্য করতে অস্বীকৃতি জানিয়েছেন।

আদালতে দাখিল করা দলিলে অ্যাপলের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, যদি সরকার এমন কোনো দাবি করে যে, ক্যালিফোর্নিয়ার মামলায় ব্যবহৃত কৌশল ব্রুকলিনে ব্যবহার করা যাবে না, তবে অ্যাপল এ নিয়ে প্রশ্ন উত্থাপন করতে চাইতে পারে।
সূত্র : বিডিনিউজ২৪

Post a Comment