যুবকের হাত কেটে দিলেন সৎ মা ও ভাই



হবিগঞ্জ শহরে এক যুবকের হাত কেটে দিয়েছেন তার সৎ মা ও ভাই। গুরুতর আহত অবস্থায় তাকে সদর আধুনিক হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এ ঘটনায় ওই যুবকের বাবা বাদি হয়ে সদর থানায় একটি মামলাও দায়ের করেছেন। বুধবার রাতে এ ঘটনা ঘটে।

হাসপাতাল সূত্রে জানা যায়, শহরের কোর্ট স্টেশন রোড এলাকার বাসিন্দা অ্যাডভোকেট আব্দুস শহীদ প্রথম স্ত্রীর মৃত্যুর পর একই এলাকার বাসিন্দা মোছাম্মদ আইনুন্নেছাকে দ্বিতীয় বিয়ে করেন। এরপর থেকে আইনুন্নেছা তার প্রথম স্বামীর ঔরসজাত পুত্র ইব্রাহিম মিয়াকে নিয়ে দ্বিতীয় স্বামীর বাড়িতে বসবাস করে আসছিলেন।

এদিকে বাবার দ্বিতীয় বিয়ের পর থেকে আব্দুস শহীদের প্রথম স্ত্রীর ছেলে-মেয়েরা নিজ বাসা ছেড়ে অন্যত্র চলে যায়। সম্প্রতি দ্বিতীয় স্ত্রী ও তার পুত্রের নানামুখী চাপে নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছিলেন আব্দুস শহীদ। তাই তিনি তার ছেলেদেরকে নিজের কাছে নেয়ার উদ্যোগ নেন।

বুধবার রাতে তার ছেলে আবুল ফজল মো. সাইফু উদ্দিন জাবেদ বাবার অসুস্থতার খবর পেয়ে বাসায় দেখতে যান। এ সময় পিতা-পুত্র সাংসারিক বিষয় নিয়ে কথা বলছিলেন। এক পর্যায়ে রাত সাড়ে ৭টার দিকে হঠাৎ ক্ষিপ্ত হয়ে তার সৎ মা দা দিয়ে তাকে কোপ দেন। এতে জাবেদের ডান হাতের কব্জি কেটে যায়।

গুরুতর আহত অবস্থায় তাকে সদর আধুনিক হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। এ ঘটনায় রাতে আব্দুস শহীদ বাদি হয়ে দ্বিতীয় স্ত্রী ও তার পুত্রের বিরুদ্ধে সদর থানায় একটি মামলা দায়ের করেন।

Source : jagonews24

Post a Comment