জয়ের সঙ্গে ভারতের লক্ষ্য রানরেটও


বাংলাদেশের বিপক্ষে জয় পাবেই। এটা ধরেই নিয়েছে ভারত। এখন তাদের মাথায় একটাই চিন্তা, বাংলাদেশকে কত বড় ব্যবধানে হারানো যায়। তাহলে রানরেটটা বাড়বে। কারণ গ্রুপ ২-এ ২ পয়েন্ট করে নিয়ে পাকিস্তান, অস্ট্রেলিয়া এবং ভারত অবস্থান করছে সমান অবস্থানে। কিন্তু রান রেটে সবার চেয়ে পিছিয়ে ভারতই। সেমি ফাইনালে যেতে হলে রানরেট বাড়ানোর কোন বিকল্প খোলা নেই ভারতের সামনে। এ কারণে বাংলাদেশ ম্যাচ নিয়ে বেশ দুশ্চিন্তায় রয়েছে ভারত।

ভারতীয় মিডিয়াগুলোই রান রেটের হিসাবটা তুলে ধর লিখছে, সেমিফাইনালের যেতে হলে ভারতের সামনে সবচেয়ে বড় বাধা দলের রান রেট; কিন্তু এই মুহূর্তে সমানে সমানে জিতেও স্বস্তি নেই ভারতের। পাকিস্তান, অস্ট্রেলিয়ার মতোই একটি করে ম্যাচ জিতে ২ পয়েন্ট ভারতের। কিন্তু রান রেটের হিসেবে নেমে যেতে হয়েছে চার নম্বরে। তাই লড়াইটা অনেকটাই কঠিন হয়ে গিয়েছে ধোনিদের জন্য।

দেশের মাঠে বিশ্বকাপে দল সেমিফাইনালে যাবে না তাও আবার হয় নাকি। তাই সেমিফাইনালে যেতে দরকার ভাল রান রেট। এখন পয়েন্ট টেবলের হিসেব বলছে পাকিস্তানের রান রেট +০.৯৯৯। অস্ট্রেলিয়ার রান রেট +০১.১০৮। আর ভারত -০.৮৯৫। এখানেই অনেকটা পিছিয়ে পড়েছেন ধোনি, বিরাট কোহলিরা। ভারত অধিনায়ক ধোনি বলেন, ‘প্রথম ম্যাচেই আমাদের রান রেট খুব খারাপ ছিল। তাই এই মুহূর্তে আমাদের কাছে শুধু জয় নয় নজর রাখতে হবে রান রেটের দিকেও।’

ব্যাঙ্গালুরুতে বাংলাদেশের বিরুদ্ধে নামার আগে তাই ধোনির দাবী রান রেট। দলের ব্যাটসম্যানদের কাছে এমনটাই চেয়েছেন তিনি। বিশেষ করে দলের বিগ হিটার্সদের কাছে ধোনির চাহিদা বাংলাদেশের বিরুদ্ধে যার যার নিজের রান রেট নিয়ে যেতে হবে তুঙ্গে। না হলে ঘরের মাঠে ছিটকে যেতে হবে হোম টিমকে।

নিউজিল্যান্ড দুটো ম্যাচই জিতে রয়েছে তালিকার শীর্ষে। আজ নিউজিল্যান্ড-পাকিস্তান ম্যাচের উপর অনেক কিছু নির্ভর করছে। যদি পাকিস্তান আজ জিতে যায় ভারতের ওপর চাপ বাড়বেই। আরও কঠিন হয়ে যাবে সেমিফাইনাল; কিন্তু ধোনি মনে করেন ভারত এখনও এই টুর্নামেন্টের ফেভারিট। তিনি বলেন, ‘আমি এখনও মনে করি আগামী দুটো ম্যাচে আমরা আরও উন্নতি করব। এখন ওই দুটো ম্যাচই আমাদের গুরুত্বপূর্ণ।’

বাংলাদেশের সামনেও রয়েছে মরিয়া লড়াই। দুটো ম্যাচই হেরে এখনও পয়েন্টের খাতা খুলতে পারেনি টাইগাররা। এশিয়া কাপে ভারতের কাছে দুটো ম্যাচ হারলেও ভাল বেগ দিয়েছিলেন মাশরাফিরা। এবারও ভারতের জন্য সহজ হবে না এই ম্যাচ। ফিরেছেন মুস্তাফিজুর। বল হাতে অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে সাকিবও সফল। ভারতীয় ব্যাটসম্যানদের সাবধান থাকতেই হবে। মাশরাফি বলেই দিয়েছেন, ‘দুটো ম্যাচ হেরে গেলেও আমরা লড়াই করব। আমাদের হাতে দুটো ম্যাচ আরও বাকি রয়েছে।’

Source : jagonews24

Post a Comment