গরমে শুধু আরাম নয়, ওজনও কমাবে জুস


প্রচণ্ড গরমে বাইরে থেকে ফিরে এক গ্লাস জুসই আপনার প্রাণ জুড়িয়ে দিবে। আবার ওজন কমাতেও বিকল্প নেই জুসের। ওজন কমানোর জন্য জিম, ডায়েটসহ আরও কত কিছুই না করছেন। হয়তো কখনও কখনও একটানা অনেকক্ষণ না খেয়ে অসুস্থ হয়ে পড়ার মতো ঘটনাও ঘটছে। এবার আর না থেকে থাকা নয়, বরং নিয়মিত খেয়েও ওজন কমানো সম্ভব। ভিটামিন সি সমৃদ্ধ এমন কিছু জুস রয়েছে যা পান করলে শুধু ওজনই কমবে না, বরং স্বাস্থ্যও ঠিক থাকবে। এগুলো শরীরের প্রয়োজনীয় পুষ্টির চাহিদা পূরণ করার পাশাপাশি তারুণ্য ধরে রাখতেও ভূমিকা রাখবে। সেই সঙ্গে আপনি হয়ে উঠবেন আরও আকর্ষণীয়। কাজেই আর দেরি না করে বাসায় বসেই বানিয়ে ফেলুন মজাদার ওজন কমানো সব জুস।

জেনে নিন ওজন কমাতে চাইলে নিয়মিত খাবেন যেসব জুস-

টমেটো ও শসার জুস
প্রথমে সাড়ে তিন কাপ টমেটো ও দুই কাপ শসা ছোট ছোট করে নিন। এবার উপাদানগুলো একটি ব্রেন্ডারে নিয়ে ভালোভাবে ব্রেন্ড করে নিন। এর মধ্যে আধা চা চামচ কালো গোলমরিচ, সামান্য মরিচের গুড়া, পরিমাণমতো লবণ ও সামান্য একটু ধনে পাতার রস মিশিয়ে বানিয়ে ফেলুন মজাদার টমেটো ও শসার জুস। এ জুস নিয়মিত খেলে তা ওজন কমাতে কার্যকারী ভূমিকা রাখে। চাইলে শুধু টমেটো কিংবা শুধু শসার জুসও পান করতে পারেন।


পালংশাক ও আপেলের জুস
২-৩ টি মাঝারী সাইজের আপেল ও দুই কাপ পালংশাক ছোট ছোট কেটে নিন। এবার একটি ব্রেন্ডারে উপাদানগুলো নিয়ে এর মধ্যে পরিমানমতো লাল মরিচের গুড়া, আধা কাপ লেটুস পাতা ও সামান্য লবণ মিশিয়ে ভালোভাবে ব্রেন্ড করে নিন। পরে গ্লাসে ঢেলে সামান্য একটু লেবুর রস মিশিয়ে বানিয়ে ফেলুন পালংশাক ও আপেলের জুস। এ জুসটিও ওজন কমাতে ভূমিকা রাখে।

হলুদ ক্যাপসিকাম ও জাম্বুরার জুস
৩টি বড় গাজর (টুকরা করা), একটি হলুদ ক্যাপসিকাম, একটি জাম্বুরার ভেতরের অংশ এবং সামান্য একটু আদা ব্রেন্ডারে ভালোভাবে ব্রেন্ড করে নিন। এবার গ্লাসে ঢেলে ইচ্ছামতো পরিবেশন করুন। জুসটি হালকা মিষ্টি করে খেতে চাইলে এর মধ্যে সামান্য একটু চিনি মিশিয়ে নিতে পারেন। এটি খেলেও কিন্তু ওজন কমে।

লেবু ও তরমুজের জুস
ব্রেন্ডারে এক কাপ তরমুজের সাথে একটি লেবুর রস ব্রেন্ড করে নিন। এবার গ্লাসে ঢেলে এক চামচ পুদিনার পাতার রস মিশিয়ে বানিয়ে ফেলুন মজাদার লেবু ও তরমুজের জুস। এ জুসও ওজন কমাতে ভূমিকা রাখে।

ডালিম ও লিচুর জুস
এক কাপ লিচু (খোসা ও বিচি ছড়ানো), আধা কাপ ডালিম ও এক চামচ ভ্যানিলা নির্যাস ব্রেন্ডারে ভালোভাবে বেন্ড করে নিন। এবার গ্লাসে ঢেলে কয়েক টুকরা বরফ দিয়ে বানিয়ে ফেলুন মজাদার ডালিম ও লিচুর জুস।

কাজেই প্রতিদিন প্রতিবার খাওয়ার কমপক্ষে ২০ মিনিট আগে যে কোন একটি জুস পান করার চেষ্টা করুন। তাতে শুধু ক্ষুধাই কম লাগবে না, ওজনও কমবে। একইসঙ্গে গরম থেকেও মুক্তি দিতেও ভূমিকা রাখবে এই জুস।
সূত্র : বিডিনিউজ২৪

Post a Comment