প্রথমবার বিদেশে খেলতে গেলেন মুস্তাফিজ


ভারতের বিপক্ষে ম্যাচ দিয়ে উত্থান বাংলাদেশ দলের নতুন পেস সেনসেশন মুস্তাফিজুর রহমানের। সেই ভারতেই বাংলাদেশ জাতীয় দলের হয়ে প্রথমবার বিদেশ সফর করছেন এ নবীন। তাও আবার আইসিসি টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের মত বড় আসরে। সোমবার সন্ধ্যায় ক্রিকেটের সংক্ষিপ্ত সংস্করণের ষষ্ঠ আসরে খেলতে ধর্মশালা পৌঁছেছেন বাংলাদেশের এ হার্টথ্রব বোলার।

তবে একটি অর্থে কিন্তু প্রথম নয়, এর আগেও তিনি বিদেশ সফর করেছেন। যদিও সে সফরগুলো ছিল অনূর্ধ্ব-১৯ দল ও বাংলাদেশ ‘এ’ দলের হয়ে। জাতীয় দলের জার্সি গায়ে এই প্রথম বিদেশ সফর এটা তার। অনুর্ধ্ব-১৯ ও ‘এ’ দলের হয়ে মুস্তাফিজ এর আগে সংযুক্ত আরব আমিরাত, দক্ষিণ আফ্রিকা ও ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফর করেছিলেন।  

এশিয়া কাপের মাঝপথে ইনজুরির কারণে ছিটকে গেলেও টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে মুস্তাফিজ খেলার মত ফিট আছেন বলে জানিয়েছেন বাংলাদেশ দলের ফিজিও বায়েজেদুল ইসলাম। নেদারল্যান্ডসের বিপক্ষে প্রথম ম্যাচ থেকেই তাকে মাঠে দেখতে পাওয়া যাবে বলে জানিয়েছেন তিনি। তাই সাধারণভাবেই দারুণ স্বস্তিতে কোচ এবং অধিনায়ক।

২০১৫ সালের জুন মাসে ভারতের বিপক্ষে অভিষেকেই একচ্ছত্র দাপট দেখিয়েছিলেন মুস্তাফিজুর রহমান। দুর্দান্ত সব কাটার-স্লোয়ারে একাই গুঁড়িয়ে দিয়েছিলেন ভারতের মত শক্তিধর ব্যাটিং লাইনআপকে। অভিষেকে প্রথম দুই ম্যাচেই নিয়েছিলেন ১১ উইকেট। এরপর থেকেই ধারাবাহিকভাবে দুর্দান্ত পারফরম্যান্স করে বাংলাদেশ দলে হয়ে উঠেছেন আস্থার মূল স্তম্ভ। 

তবে এর আগেই আন্তর্জাতিক ক্রিকেট অভিষেক হয় মুস্তাফিজের। পাকিস্তানের বিপক্ষে একমাত্র টি-টোয়েন্টি ম্যাচই ছিল তার প্রথম আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে প্রবেশের প্রথম ধাপ। ওই ম্যাচে দারুণ উজ্জ্বল ছিলেন এ তরুণ। মোহাম্মদ হাফিজ ও শহিদ আফ্রিদির মত তারকা ব্যাটসম্যানদের উইকেট তুলেই শুরু করেছিলেন ক্যারিয়ারের যাত্রা।

সদ্য সমাপ্ত এশিয়া কাপে শ্রীলংকার বিপক্ষে ম্যাচে হঠাৎ করেই পেশীতে ব্যাথা অনুভব করেন মুস্তাফিজ। এরপর তার ব্যথা আরও বাড়ায় পরীক্ষা করানো হয় অ্যাপোলো হাসপাতালে। এমআরআই স্ক্যান রিপোর্টে চোট ধরা পড়ায় বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি) তাকে নিয়ে কোন ঝুঁকি নেয়নি। সাইড স্ট্রেনের চোটে এশিয়া কাপই শেষ হয়ে যায় তার। দু’দিন বিশ্রামের পর বাংলাদেশ দলের ফিজিও বায়েজেদুল ইসলামের অধীনে পুনর্বাসন প্রক্রিয়া শুরু হয় মুস্তাফিজের।
Source : jagonews24

Post a Comment