মাশরাফিদের সামনে অচেনা ওমান


আয়ারল্যান্ডের বিরুদ্ধে ধর্মশালার ম্যাচে শুক্রবার বৃষ্টি ভিলেন হলো ঠিকই; কিন্তু যেভাবে ব্যাটিংয়ে ঝড় তুলেছিল তামিম তা প্রশংসার পাওয়ারই যোগ্য। সে সঙ্গে আরও একবার মনে করিয়ে দিল তারা টাইগার। বুক চিতিয়ে খেলতেই ভালোবাসে।

ওইদিন সকাল থেকেই শঙ্কা ছিল, খেল হবে কিনা। ওমান-নেদারল্যান্ডস ম্যাচ পণ্ড হয়ে যায় টানা বৃষ্টির কারণে। বাংলাদেশ ম্যাচের আশাও ক্ষীণ হয়ে যায়। তবে বৃষ্টি একটু কমলে খেলা শুরু হয়েছিলও। ম্যাচের ওভার কমিয়ে ১২ করা হয়; কিন্তু তাতেও হলো না। ৮ ওভার খেলার পরই আবার বৃষ্টি নামলো। মাঠ ছাড়তে হলো মাশরাফিদের। তবে হতাশ নয়, ৮ ওভারে যে খেলা তার দলের ছেলেরা দেখালো তাতেই খুশি মাশরাফি।

তামিমের ব্যাটিংয়ে মুগ্ধ মাশরাফি বলেন, ‘এমন খলাটাই চেয়েছিলাম।’ যেভাবে ঝোড়ো ব্যাটিং করল তামিম, তাতে বুঝিয়ে দিলো এবার আর কাউকে রেহায়ই নয়। বিশ্ব ক্রিকেটের টি-টোয়েন্টি ফরম্যাটে নিজেদের আস্তে আস্তে যেভাবে মেলে ধরতে শুরু করেছেন তামিম-মাশরাফি-সৌম্যরা, অনেক দলই এবার টাইগারদের সঙ্গে সতর্ক হয়েই খেলবেন। আর সেই রাস্তাটাই তৈরি করে রাখতে চাইছেন মাশরাফি এবং কোচ হাতুরুসিংহে।

মাশরাফি বলেন, ‘নেদারল্যান্ডসের বিরুদ্ধে সতর্ক হয়ে খেলেছি। কারণ প্রথম ম্যাচ, নতুন জায়গা। সেদিন সেরাটা খেলতে পারিনি। তবে আজ যা খেলেছি, ভালোই হয়েছে। ম্যাচটা পুরো হলে ছবিটা অন্য রকম হতো। এমনটাই শুরু করতে চেয়েছিলাম।’

এবার সামনে ওমান। মধ্যপ্রাচ্যের এই দেশটি বাংলাদেশের সামনে পুরোপুরি অচেনা। আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ওমানের পথচলা খুব বেশি দিন আগে নয়। ফলে আরব্য রজনীর এই দেশটির সঙ্গে খেলা হয়নি এখনও বাংলাদেশের। তাই সম্পূর্ণ অপরিচিত এ দলটির বিপক্ষে একটু বেশিই সাবধানী টাইগাররা। অলিখিত সেমিফাইনাল হয়ে যাওয়ায় এ ম্যাচ একটু চাপেই থাকবে বাংলাদেশ।

এ প্রসঙ্গে বাংলাদেশ দলের অধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তুজা বলেন, ‘শেষ ম্যাচটি আমাদের জন্য অবশ্যই চাপের। ওমান ভালো ক্রিকেট খেলছে, ওদের এভাবে খেলতে দেখাও দারুণ। এখন আমাদের দুই দলেরই পয়েন্ট তিন। রান রেটে যদিও আমরা এগিয়ে আছি। আমরা আত্মবিশ্বাসীও আছি। যেভাবে খেলে আসছি, সেভাবে খেলতে পারলে আমরা ভালো করলো।’ তবে ওমান বাধাও টপকাবেন বলে বিশ্বাস অধিনায়ক মাশরাফির।

যদিও প্রথমবারের মতো বিশ্বকাপের মঞ্চে খেলতে এসে টুর্নামেন্টের শুরুতেই শক্তিশালী আয়ারল্যান্ডকে হারিয়ে চমকে দেয় ক্রিকেটবিশ্বকে। দারুণ লড়াই করে দুই উইকেটে আইরিশদের হারায় আরব দেশটি। ডাচদের বিপক্ষে পরের ম্যাচ বৃষ্টিতে ভেসে যাওয়ায় তাদের সংগ্রহও বাংলাদেশের সমান তিন পয়েন্ট। তাই মূল পর্বের যাওয়ার দারুণ সুযোগ কাজে লাগাতে দারুণ আত্মবিশ্বাস নিয়েই মাঠে নামবে আইসিসির সহযোগী এ দেশটি।

Source : jagonews24

Post a Comment