মাশরাফিদের মনোবল ফেরানোর চেষ্টা টিম ম্যানেজমেন্টের


‘ঘরের দুইজন ছেলের যদি সমস্যা হয়, আপনি যেকোনো কাজই ভালোভাবে করতে পারবেন না। সেই উদ্যমটা আর পাবেন না। আমাদের কাছে জিনিসটা এখন ওই রকম। আমাদের মানসিক অবস্থাও এখন একরকম নেই। সবাই দেখলেই বুঝতে পারবেন’- কথাগুলো বলেছেন বাংলাদেশ দলের অধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তুজা। শুধু তাই নয় কথা শেষে অঝোরে কেঁদেছিলেনও অধিনায়ক। কান্নার শুরু এখানে নয়।

আগের দিন বোলিং অ্যাকশনের ফলাফল পাওয়ার পরই হাউমাউ করে কেঁদেছেন তাসকিন আহমেদ। কুড়িতে পড়া এ পেসার এখনই দেখলেন বিশ্ব ক্রিকেটের রাজনীতি। গোটা বাংলাদেশ শিবির যেন একটি মরা বাড়িতে পরিণত। তবে ক্রিকেটারদের মনোবল ফিরিয়ে আনার আপ্রাণ চেষ্টা করে যাচ্ছে বাংলাদেশ টিম ম্যানেজমেন্ট।

আগের দিন তাসকিনকে সান্ত্বনা দেয়ার চেষ্টা করেছেন অধিনায়ক মাশরাফিসহ বাংলাদেশ দলের সবাই; কিন্তু সান্ত্বনাতে কি আর কাজ হয়! সবাই রীতিমতো হিমশিম খাচ্ছেন তাকে সামলাতে। আর তাকে কী সামলাবেন তারা, পুরো দলই যে মুষড়ে পড়েছে তাসকিনের শোকে! আইসিসির এ বিরূপ সিদ্ধান্তে হতবাক তাসকিন আজ অনুশীলনই করেননি। বসেছিলেন মাঠের এক কোণে।

পরদিনই (সোমবার) অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে দলের সবাইকে বোঝানোর চেষ্টা করছেন বাংলাদেশ দলের ম্যানেজার, কোচসহ সকল কর্মকর্তারা। শুধু ম্যানেজমেন্টই নয়। দলকে চাঙ্গা করতে বাইরে থেকে সাহস দিচ্ছেন বাংলাদেশ থেকে উড়ে যাওয়া সাংবাদিকরাও। বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) প্রধান নাজমুল হাসান পাপনও খোঁজখবর নিয়ে তাদের সান্ত্বনা দিয়েছেন।

এ নিয়ে আজ সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেন, ‘বাংলাদেশ দল ওখানে খেলতে গেছে। ওদের একমাত্র কাজ খেলা। অন্য কিছু নিয়ে চিন্তা করার কোনো দরকারই নেই। আমাদের সাহস আছে। আমরা লড়বো। তাদের শুধু খেলায় মনোযোগ দিতে হবে। বাকি চিন্তা-ভাবনা আমরা করবো।’

উল্লেখ্য, টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের বাছাই পর্বে নেদারল্যান্ডসের বিপক্ষে ম্যাচে বাংলাদেশের পেসার তাসকিন আহমেদ এবং স্পিনার আরাফাত সানির বোলিং অ্যাকশন নিয়ে সন্দেহ প্রকাশ করেন দুই অনফিল্ড আম্পায়ার এস রবি এবং রড টাকার। এর পরদিন আনুষ্ঠানিকভাবে তাদের বোলিং অ্যাকশন নিয়ে অভিযোগ তোলে আইসিসিও।

এরপর গত ১২ মার্চ সানি ও ১৫ মার্চ তাসকিন চেন্নাই বিশ্ববিদ্যালয়ের বায়োমেকানিক্যাল সেন্টারে বোলিং অ্যাকশনের পরীক্ষা দিয়ে আসেন। সানির পরীক্ষার ফলাফল এক সপ্তাহ পর দিলেও তাসকিনের ফলাফল পাওয়া যায় চার দিনের মাথায়।

এতে নিষিদ্ধ হন দু’জনই। সানির নিষেধাজ্ঞা মেনে নিলেও তাসকিনের নিষেধাজ্ঞা মানতে পারছে না বিসবি। রোববার তাসকিনের নিষেধাজ্ঞার পুনর্বিবেচনা করার দাবিতে আইসিসিতে আপিল করেছে বাংলাদেশের ক্রিকেট নিয়ন্ত্রক সংস্থাটি (বিসিবি)।

Source : jagonews24

Post a Comment