নতুন নিয়োগে গতি পাবে বাংলাদেশ বিমান


লোকসান কমিয়ে আনার পাশাপাশি বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের দৈনন্দিন কাজে গতি আনতে প্রস্তাবিত নতুন জনবল নিয়োগের প্রক্রিয়া শুরু হবে অগ্রাধিকার ভিত্তিতে। নতুন খসড়া জনবল কাঠামোয় প্রায় ১ হাজার ১৭৫ জন নতুন কর্মকর্তা ও কর্মচারী নিয়োগ এখন সময়ের ব্যাপার বলেই মনে করা হয়। বর্তমান অর্গানোগ্রামে জনবল রয়েছে ৩ হাজার ৪০০ জন। নতুন অর্গানোগ্রামে তা বাড়িয়ে ৪ হাজার ৫৭৫ জন করা হবে।

অন্যদিকে উপ-মহাব্যবস্থাপকসহ ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের কিছু পদ বিলুপ্ত করার বিষয় উল্লেখ রয়েছে প্রস্তাবিত নতুন কাঠামোতে। একই সঙ্গে চিফ কমার্শিয়াল অফিসার ও চিফ ফিন্যান্স অফিসারের মতো নতুন কিছু পদও সংযুক্ত করার সিদ্ধান্ত হয়েছে। সংশ্লিষ্টদের মতে, নতুন কাঠামো বাস্তবায়নের পর বিমান নতুন গতি পাবে।

এ বিষয়ে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইনসের জনসংযোগ মহাব্যবস্থাপক খান মোশাররফ জাগো নিউজকে বলেন, কাজে গতি আনতে প্রস্তাবিত নতুন জনবল নিয়োগের প্রক্রিয়া শুরু হবে অগ্রাধিকার ভিত্তিতে।

তিনি আরো বলেন, গত ডিসেম্বরে বিমানের পরিচালনা পর্ষদ বিলুপ্ত হয়। তবে এর আগেই পর্ষদ সদস্যরা বিমানের নতুন অর্গানোগ্রামের সম্মতি দেন। পরিচালনা পর্ষদ পুনর্গঠন হলেই অর্গানোগ্রামের অনুমোদন দেয়া হবে। এছাড়া প্রতিষ্ঠানের প্রতি দায়বদ্ধতা বাড়ানোর লক্ষ্যে অর্গানোগ্রামে কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের চাকরিবিধিও সংযুক্ত করা হচ্ছে। 

উল্লেখ্য, জনবল ৪ হাজার ৪শতে নামিয়ে আনাসহ চারটি শর্তে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইনসকে ২০০৭ সালে কোম্পানি করা হয়। সে সময় স্বেচ্ছা-অবসর স্কিমের আওতায় মন্ত্রণালয়ের নির্দেশ অনুযায়ী জনবল কমিয়ে আনার সিদ্ধান্ত হয়।

বিমানের কর্মরত জনবল-সংক্রান্ত পরিসংখ্যান অনুযায়ী, ২০০৭ সালের ৩০ জুন পর্যন্ত স্থায়ী ৪ হাজার ৫৯৯ ও অস্থায়ী (ক্যাজুয়াল) ৭৫৬ জনসহ মোট জনবল ছিল ৫ হাজার ৩৫৫ জন। একই বছর ৩১ ডিসেম্বর স্থায়ী জনবল দাঁড়ায় ২ হাজার ৭৯২ ও অস্থায়ী ১ হাজার ৪২৩ জনে। আবার ২০০৮ সালের ৩১ ডিসেম্বরে স্থায়ী জনবল ২ হাজার ৮৭৪ ও অস্থায়ী ১ হাজার ৮০৯ জনসহ মোট জনবল দাঁড়ায় ৪ হাজার ৬৮৩ জনে। বর্তমানে বিমানের জনবল সাড়ে ৪ হাজারের মতো। এর মধ্যে স্থায়ী জনবল ৩ হাজার ১৯৭ জন এবং ১ হাজার ২০০টি অস্থায়ী পদ। 
সূত্র : জাগোনিউজ২৪

Post a Comment