জট খুলছে বারমুডা ট্রায়াঙ্গল রহস্যের?


বারমুডা ট্রায়াঙ্গল নিয়ে রহস্যের কূল-কিনারা শেষ নেই। আটলান্টিক মহাসাগরের একটি বিশেষ অঞ্চল। ত্রিভূজ আকৃতির, যেখানে বেশ কিছু জাহাজ ও উড়োজাহাজ রহস্যজনক ভাবে নিখোঁজ হয়েছে। 

তবে বারমুডা ট্রায়াঙ্গল রহস্যের সমাধানের বিষয়ে আশার বাণী শোনালেন নরওয়ের আর্কটিক বিশ্ববিদ্যালয়ের একদল গবেষক। সম্প্রতি ব্রিটেনের প্রভাবশালী সংবাদ মাধ্যম ডেইলি মেইলের এক প্রতিবেদনে এ বিষয়টি উঠে এসেছে।

প্রতিবেদনে গবেষকদের বরাত দিয়ে বলা হয়েছে, উত্তর মেরুর ব্যারেন্টস সাগরের তলদেশে বিশালাকারের বেশ কিছু গর্তের খোঁজ পাওয়া গেছে। এই গর্ত বা আগ্নেয়গিরির মুখগুলোর ব্যাস ৩ হাজার ২৮০ ফুট ও গভীরতা ১৩১ ফুটের কাছকাছি। থ্রিডি সিসমিক ইমেজিং পদ্ধতিতে গর্তগুলো শনাক্ত করা হয়েছে। সাধারণত তেলের খনি থেকে সৃষ্ট উচ্চ চাপের মিথেন গ্যাসের উদগীরণে এ গর্ত সৃষ্টি হয়।

ডেইলি মেইল বলছে, এ আবিষ্কারের ফলে বারমুডা ট্রায়াঙ্গল এলাকায় জাহাজ ও বিমানের হারিয়ে যাওয়ার ঘটনার বিষয়ে ব্যাখ্যা পাওয়া যাবে। এর আগে ২০১৪ সালে সাইবেরিয়ান টাইমসকে রাশিয়ার গবেষক ভ্লাদিমির পোতাপভ বলেন, মিথেন গ্যাসের উদগীরণ সমুদ্রকে উত্তপ্ত করে। মিথেনযুক্ত পানির কারণে জাহাজ ডুবে যায়। এ ছাড়া বায়ুমণ্ডলেও বিশেষ পরিবর্তনের ফলে বিমান দুর্ঘটনার শিকার হয়।

Source : jagonews24

Post a Comment