নতুন প্রজন্মের অধিকাংশই অগ্রজ সাংবাদিকদের চেনেন না


জাতীয় প্রেসক্লাবের দোতলার ক্যান্টিনের পূর্বদিকের দেয়ালে প্রয়াত এক ডজন সাংবাদিকের সাদা কালো ফটোগ্রাফ টাঙিয়ে রাখা হয়েছে। এককালের খ্যাতনামা এসব সাংবাদিক যারা এ পেশাকে সামনে এগিয়ে নেয়ার লক্ষ্যে গুরত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেছেন মৃত্যুর পর অনেকের স্মৃতি থেকে একেবারেই হারিয়ে গেছেন তারা। কালেভদ্রে আলোচনা সভায় তাদের নাম বলা হলেও প্রতিনিয়ত জীবন সংগ্রামে লিপ্ত গণমাধ্যম কর্মীদের ক’জনই বা তাদের কথা মনে করেন। প্রেসক্লাবের দোতলার এ ক্যান্টিনটিতে প্রতিদিন অনেক সাংবাদিক বিশেষ করে গত বছর যারা ক্লাবের নতুন সদস্য হয়েছেন তারা সকাল, দুপুর ও বিকেল ও রাতের খাবার খেতে যান।

কিন্তু দেয়ালে টাঙিয়ে রাখা ফটোগ্রাফগুলোর দিকে ভুলেও চোখ যায় না। আবার দৃষ্টিগোচর হলেও না চেনায় এগিয়ে গিয়ে নামটি পর্যন্ত দেখার প্রয়োজন বোধ করেন না অনেকে। সম্প্রতি জাগো নিউজের এ প্রতিবেদক দোতলার ক্যান্টিনের খাবার টেবিলে বেশ কয়েকজন নতুন প্রজন্মের সাংবাদিককে প্রয়াত এসব সাংবাদিকদের নাম পরিচয় জানেন কি না জানতে চাইলে তারা দূর থেকে দেখে কাউকে চিনতে পারেননি। অধিকাংশই সামনে এগিয়ে গিয়ে ফটোগ্রাফ দেখে নাম শুনেছেন বলে জানিয়েছেন।

একইভাবে নীচতলায় বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়ন (বিএফইউজে) ও ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়ন (ডিইউজে) কার্যালয়ের সভাপতি ও মহাসচিব/সাধারণ সম্পাদক চেয়ারের পেছনে মহান স্বাধীনতা যুদ্ধে নিহত ১৩ সাংবাদিকের নাম টাঙানো রয়েছে। তাদের প্রায় কারোরই নাম জানেন না নতুন প্রজন্মের সাংবাদিকরা।

দোতলার ক্যান্টিনে যে সকল প্রয়াত ও প্রেসক্লাবের সিনিয়র সদস্যদের ফটোগ্রাফ টাঙানো রয়েছে তাদের মধ্যে রয়েছেন মওলানা মোহাম্মদ আকরাম খাঁ, আবুল কালাম শামসুদ্দিন, মাহবুব উল আলম, আবুল মনসুর আহমদ, কাজী মোহাম্মদ ইদ্রিস,মোহাম্মদ মোদাব্বের, আবদুস সালাম, আতিকুজ্জামান খান, সৈয়দ নূরুদ্দিন, মকবুল হোসেন চৌধুরী, সিরাজউদ্দিন হোসেন, আহমেদ হুমায়ুন ও সানাউল্লাহ নূরী।

এছাড়া মহান স্বাধীনতা যুদ্ধে শহীদদের নামের তালিকায় যাদের নাম লিপিবদ্ধ আছে তারা হলেন; সিরাজউদ্দিন হোসেন, শহীদুল্লাহ কায়সার, খোন্দকার আবু তালেব, নিজামউদ্দিন আহমেদ, এস, এ, মান্নান (লাডু ভাই), আ ন ম গোলাম মোস্তফা, সৈয়দ নাজমুল হক,আবুল বাশার, শিব সাধন চক্রবর্তী, চিশতি শাহ হেলালুর রহমান, মুহম্মদ আখতার, সেলিনা পারভীন ও এ, কে, এম, শহীদুল্লাহ্ (শহীদ সাবের)।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে কয়েকজন বর্তমান ও সাবেক সাংবাদিক নেতা জাগো নিউজকে বলেন, এটাই ধ্রুব সত্য যে নতুন প্রজন্মের অনেক সাংবাদিক অগ্রজ মরহুম সাংবাদিকদের অনেককে চিনে না, নামও জানে না। নতুনদের কাছে তাদের পরিচিতি তুলে ধরা তাদের দায়িত্বের মধ্যে পড়ে বলে স্বীকার করেন তারা।
সূত্র : জাগোনিউজ২৪

Post a Comment