বাংলাদেশ ব্যাংকের দুর্বলতা শনাক্তের চেষ্টা চলছে : সিআইডি


বাংলাদেশ ব্যাংকের রিজার্ভ থেকে ৮০০ কোটি টাকা লুটের ঘটনায় ব্যাংকের কোথায় কোথায় দুর্বলতা ছিল প্রথমে সেটি শনাক্তের চেষ্টা করা হচ্ছে। বুধবার রাতে পুলিশের অপরাধ ও তদন্ত বিভাগের (সিআইডি) বিশেষ পুলিশ সুপার (অর্গানাইজড ক্রাইম) মির্জা আব্দুল্লাহেল বাকী সাংবাদিকদের এ কথা জানান।

তিনি বলেন, তদন্তের স্বার্থে কয়েকজন কর্মকর্তার সঙ্গে কথা বলা হয়েছে। ব্যাংকের সার্ভারের কম্পিউটারগুলো থেকেও তথ্য সংগ্রহ করা হচ্ছে।

এর আগে রিজার্ভের টাকা চুরির ঘটনায় মঙ্গলবার মতিঝিল থানায় একটি মামলা দায়ের করে বাংলাদেশ ব্যাংক। এর তদন্তের দায়িত্ব নেয় সিআইডি। দায়িত্ব নিয়েই বুধবার বাংলাদেশ ব্যাংকে পরিদর্শনে যান সিআইডি কর্মকর্তারা।

মির্জা আব্দুল্লাহেল বাকী বলেন, তদন্তের কাজ শুরুর প্রথম দিনে বাংলাদেশ ব্যাংকের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের কাছ থেকে বিভিন্ন তথ্য সংগ্রহ করা হয়েছে। সংগৃহিত তথ্য বিশ্লেষণ করে দেখা হচ্ছে যে বাংলাদেশ ব্যাংকের কেউ এ ঘটনায় জড়িত রয়েছে কি না।

বাংকের সাবেক গভর্নরকে জিজ্ঞাসাবাদের বিষয়ে সাংবাদিকদদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, তদন্তের প্রয়োজনে ব্যাংকের বতর্মান ও সাবেক কর্মকর্তাদেরকেও জিজ্ঞাসাবাদ করা হতে পারে। সেখানে পদ-পদবী বিবেচনায় আসবে না।

বিশেষ পুলিশ সুপার বলেন, রিজার্ভের টাকা চুরির ঘটনাটিতে বাংলাদেশসহ চারটি দেশের সম্পৃক্ততা রয়েছে। তদন্তের স্বার্থে সে সকল দেশেও আমাদের তদন্ত কর্মকর্তারা যেতে পারেন। প্রয়োজনে ইন্টারপোলসহ অন্যান্য সংস্থার সঙ্গে রাষ্ট্রীয় বিধান মেনে যোগাযোগ করা হতে পারে।

Source : jagonews24

Post a Comment