মীমের কাকতাড়ুয়া ক্রাফট


ঘাস, পাতা, মাটি কিংবা ফেলনা জিনিসকে ফেলনা মনে হয় না তার কাছে। খুব ছোটবেলা থেকে আগ্রহ জন্মায় এসব দিয়ে কিছু তৈরি করার। নিছক কৌতুহল থেকেই শুরু হলো কাকতাড়ুয়া ক্রাফটের পথচলা। ও হ্যাঁ, বলছিলাম মীম নোশিন নাওয়াল খানের কথা। ক্ষুদে এই উদ্যোক্তা কেবলই দশম শ্রেণির শিক্ষার্থী। পড়ছেন ভিকারুন্নেছা নুন স্কুলে। এরবাইরেও মীমের আরেকটি পরিচয় আছে। মীম একজন লেখক। বয়স কম হলেও তার লেখা প্রকাশিত বই এবং প্রাপ্ত পুরস্কারের সংখ্যা কিন্তু অনেক।

চুড়ি, ব্রেসলেট, কানের রিং, দুল, টপ, গলার হার, মালা, হেয়ার ব্যান্ড, হেয়ার ক্লিপ, খোঁপার কাঁটা, পায়েল, আংটি, ক্যান্ডেল, পেন হোল্ডার, চাবির রিং, টি শার্ট, শোপিস, পেইন্টিং করা পটারি, গ্লাসপেইন্টিং ওয়ালমেট, হ্যান্ডমেইড কার্ড- কী নেই মীমের কাকতাড়ুয়া ক্রাফটে! সবকিছুই মীম তৈরি করেন নিজ হাতে। এবং কারো কাছে প্রশিক্ষণও নেন নি। কিন্তু মীমের কাজ দেখে তা বোঝার উপায় নেই। এতটাই নিখুঁত যে চমকে যেতে হয়।

পড়ালেখার ব্যস্ততার মধ্যে সময় মেলে কীভাবে? মীম স্কুলের পড়া স্কুলেই শেষ করেন। কোনো প্রাইভেট টিউটরের কাছে আলাদা করে পড়েন না। তাই বেশ সময় বেঁচে যায়। সেই সময়টুকুই কাজে লাগান লেখালেখি এবং কাকতাড়ুয়া ক্রাফটের পেছনে। কাকতাড়ুয়া ক্রাফট নামটির পেছনেও পাওয়া গেল মীমের বিচক্ষণতার পরিচয়। ধানক্ষেত থেকে পাখি তাড়ানোর জন্য যেমন কাকতাড়ুয়া রাখা হয়, প্রিয় স্বদেশ থেকে তেমনি ভিনদেশি পণ্য তাড়ানোর লক্ষ্যেই মীমের এই নামকরণ।

সময়ের কাজ সময়ে করেন বলে বাসার কারো আপত্তি নেই তার এই কাজের ক্ষেত্রে। বরং বায়না ধরে মাঝে মাঝে মা-বাবার সঙ্গে গিয়ে কিনে আনেন প্রয়োজনীয় সরঞ্জাম। তারপর নিজ থেকেই লেগে পড়েন শখের সব জিনিস তৈরিতে। গয়না তৈরিতে মীম ব্যবহার করেন পুতি, বাঁশ, কাঠ, মাটি, স্টোনসহ দেশীয় সব উপাদান। বিভিন্ন দিবস উপলক্ষেও তৈরি করা হয় গয়না, টি শার্ট। এছাড়া গায়ে হলুদের জন্য ক্রেতার রুচি ও কাঙ্ক্ষিত ডিজাইন অনুযায়ী গয়না তৈরি করে থাকেন মীম।

মীমের তৈরি গয়না পাওয়া যাবে ২০-৩০০ টাকার ভেতরে। এর বাইরে অল্পকিছু গয়না আছে যা পাওয়া যাবে ৫০০-৬০০ টাকায়। আংটি, ক্যান্ডেল, পেন হোল্ডার, চাবির রিং, টি শার্ট, শোপিস, পেইন্টিং করা পটারি, গ্লাসপেইন্টিং ওয়ালমেট, হ্যান্ডমেইড কার্ড মিলবে ২০-৩০০ টাকার মধ্যেই। টি শার্ট পাওয়া যাবে ৩৫০- ৪০০ টাকায়। আর ওয়ালমেটের দৈর্ঘ্যর সঙ্গে মিলিয়ে বেশি-কম হবে এর দরদাম। এসবকিছু নিয়ে ফেসবুকে একটি পেজ রয়েছে তার।
সূত্র : জাগোনিউজ২৪

Post a Comment