এই প্রথম চাটার্ড প্লেনে উঠলেন মাশরাফিরা


প্রতি বছরই বিভিন্ন সিরিজ এবং টুর্নামেন্ট উপলক্ষে বাংলাদেশ ক্রিকেট দলকে বিভিন্ন দেশে যেতে হয় খেলার জন্য। সেটা বিশ্বকাপ হোক কিংবা অন্য কোন টুর্নামেন্ট। প্রতিবারই বাংলাদেশের ক্রিকেটারদের ভ্রমণের জন্য মাধ্যম হিসেবে বেছে নেয়া হয় সাধারণ যাত্রীবাহী বিমান।
হয়তো বা বিমানে ক্লাসটা উন্নত মানের হয় ক্রিকেটারদের জন্য; কিন্তু কখনও তারা ভাড়া করা (চাটার্ড) বিমানে ওঠেননি। এবার সেই অভিজ্ঞতাও হলো বাংলাদেশ দলেরে ক্রিকেটারদের। দিল্লি থেকে ভাড়া করা বিমানে করে ধর্মশালায় গিয়ে পৌঁছেছে বাংলাদেশ দলের ক্রিকেটাররা।

মূলতঃ সমস্যা তৈরী হয়েছিল বলেই এই ভাড়া করা বিমান প্রসঙ্গ। ৬ ফেব্রুয়ারি এশিয়া কাপের ফাইনাল খেলেছে বাংলাদেশ ক্রিকেট দল। পরদিনই, অথ্যাৎ আজ (৭ ফেব্রুয়ারি) টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ খেলতে ভারত যাওয়ার সূচি আগে থেকেই ঠিক করা ছিল বাংলাদেশের।

কিন্তু সমস্যা হচ্ছে, ৭ ও ৮ ফেব্রুয়ারি দিল্লি থেকে ধর্মশালায় কোন ফ্লাইট নেই। সুতরাং, দিল্লি থেকে মাশরাফিদের ধর্মশালায় যেতে হবে বাসে করে। যাতে সময় লাগবে ১১ ঘণ্টা। কিন্তু একদিন পরই আবার তারা খেলতে নামবে নেদারল্যান্ডসের বিপক্ষে। ফলে, বাসে করেও যাওয়া সম্ভব নয়।
এ অবস্থায় করণীয় কী- তা নিয়েই দুশ্চিন্তাতে ছিলো বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)। তবে বাংলাদেশ-পাকিস্তান ম্যাচের দিন মিরপুর খেলা দেখতে গিয়ে বিসিবি প্রেসিডেন্ট নাজমুল হোসেন পাপনের কাছে সমস্যাটা শুনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাই ঘোষণা দেন, তিনি মাশরাফির জন্য বিশেষ বিমানের ব্যবস্থা করবেন। অথ্যাৎ ভাড়া করা বিমানেই ধর্মশালা যাবে বাংলাদেশ ক্রিকেট দল।

সে হিসেবেই আজ সকাল ১০টায় সাধারণ যাত্রী বিমানে করে দিল্লিতে গিয়ে পৌঁছায় বাংলাদেশ ক্রিকেট দল। সেখান থেকে ভাড়া করা স্পেশাল বিমানে করে ধর্মশালার কাংড়া এয়ারফোর্টে গিয়ে নামে মাশরাফি অ্যান্ড কোং এবং এই প্রথম চার্টার্ড ফ্লাইট ভাড়া করে কোথাও সফর করলো বাংলাদেশের ক্রিকেট দল।

Source : jagonews24

Post a Comment