**TRY FREE HUMAN READABLE ARTICLE SPINNER/ARTICLE REWRITER**

পিত্জা সরবরাহ করবে রোবট!


বিশ্বের প্রথম স্বয়ংক্রিয় পিত্জা সরবরাহকারী যান হতে যাচ্ছে ‘ডমিনোস ড্র’ ( ডমিনোস রোবটিক ইউনিট)। অস্ট্রেলিয়ার বিভিন্ন বাসাবাড়িতে পিত্জা সরবরাহ করবে এই রোবট। ব্রিসবনে গত বৃহস্পতিবার নতুন এই রোবটটির বিশেষ প্রদর্শণ হয়। 

প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠান ম্যরাথন টারগেটস্ এবং ডমিনোস অস্ট্রেলিয়া যৌথভাবে তৈরি করেছে ড্রু। এতে ব্যবহার হয়েছে প্রতিষ্ঠানের জিপিএস ট্র্যাকিং ডাটা। সেই সঙ্গে আছে সেন্সরি সিস্টেম। এর মাধ্যমে নানা বাধা অতিক্রম করতে পারে ড্রু। সঠিক পথ নির্ণয় করে সহজেই পৌঁছে যায় গ্রাহকের ঠিকানায়। সবই চলে স্বয়ংক্রিয় পদ্ধতিতে।

চলতি মাসের প্রথম দিকে চার চাকার এই রোবট তার পরীক্ষামূলক ডেলিভারি সম্পন্ন করে।  গ্রাহকের চাহিদা মতো কাজ করতে সক্ষম রোবট ড্রু বাইসাইকেল বা হাঁটা পথে ধরে ঘণ্টায় পাড়ি দিতে পারবে ১২মাইল। তবে এটি কত দূরত্ব পাড়ি দিয়ে পিৎজা পৌঁছে দিতে সক্ষম তা জানা যায়নি। 

একবার ড্রু নির্দিষ্ট ঠিকানায় পৌঁছে গেলে গ্রাহক তার ফোনে সরকরাহকারী প্রতিষ্ঠান থেকে দেয়া নিরাপত্তা কোডে প্রবেশ করবেন। এর পর রোবটকে তার বন্ধ স্টোরেজটি খোলার আদেশ দেবেন। কথামতো স্টোরেজটি খুলতেই গ্রাহক পাবেন তার কাঙ্ক্ষিত পিত্জাটি। 

ডমিনোসের তথ্য অনুযায়ী, গত বছর মাইক্রোচিপ দিয়ে রোবট তৈরির কার্যক্রম শুরু হয়। এটি একটি বড় ধারণা ছিল। এ কাজে সফল হওয়াও বিরাট ব্যাপার।

এর আগে ২০১৩ সালে ‘ডমিনোস’ প্রযুক্তির মাধ্যমে পিত্জা সরবরাহের একটি উদ্যোগ নিয়েছিল। সেই সময় উন্মোচন করে পিত্জা সরবরাহকারী ড্রোন ‘ডমিকপ্টার’। ইউটিউবে  ডমিকপ্টারের একটি ভিডিও পোস্ট করেছিল  নির্মাতা প্রতিষ্ঠান যুক্তরাজ্যভিত্তিক ড্রোন কোম্পানি অ্যারোসাইট।
উল্লেখ্য যুক্তরাষ্ট্র ভিত্তিক ডমিনোস পিৎজা চেইন থেকে স্বাধীন হলেও নাম, লোগো এবং রেসেপি ব্যবহারের জন্য তাদের রয়েলিটি দেয় ডমিনোস অস্ট্রেলিয়া।
সূত্র : জাগোনিউজ২৪

Post a Comment