ইংল্যান্ডে যৌন ব্যধি ‘গনোরিয়া’র মহামারির আশংকা


 ইংল্যান্ডের ডাক্তাররা সমকামী পুরুষদের মধ্যে ‘সুপার-গনোরিয়া’ বা যৌনাঙ্গের ধাতব রোগ ব্যাপক আকারে ছড়িয়ে পড়ার সতর্কতা দিয়েছেন। গত বছর লিডস শহরে এই রোগের জন্য দায়ী নতুন ধরণের জীবাণুর প্রকোপ দেখা দেয়। কিন্তু বর্তমান চিকিৎসা পদ্ধতি এই জীবাণুর বিরুদ্ধে অকার্যকর প্রমাণ হলে দেশজুড়ে জাতীয় সতর্কতা জারি করা হয়।

সুপার-গনোরিয়া যৌন সম্পর্ক স্থাপনের মাধ্যমে ছড়ায়। রোগাক্রান্তরা প্রজনন ক্ষমতা হারিয়ে ফেলে। চিকিৎসকেরা বলছেন রোগটি এন্টিবায়োটিক-নিরোধী হওয়ায় খুব দ্রুত অনিরাময়যোগ্য হয়ে পড়তে পারে।  

ইতিমধ্যেই ইংল্যান্ডের বেশ কয়েকটি জায়গায় সুপার-গনোরিয়ায় আক্রান্ত মানুষ চিহ্নিত করা হয়েছে। এখনও পর্যন্ত মাত্র ৩৪ জন আক্রান্তের কথা নিশ্চিত হওয়া গেছে। কিন্তু ধারণা করা হচ্ছে, আক্রান্ত আরও রোগী রয়েছে। 

পাবলিক হেলথ ইংল্যান্ড স্বীকার করতে বাধ্য হয়েছে নতুন এই জীবাণুটির ব্যাপক আকারে ছড়িয়ে পড়া রুখতে তারা সফল হয়নি। প্রথমে ধারণা করা হয়েছিল, যারা শুধু বিপরীত লিঙ্গের সাথে যৌন সম্পর্ক স্থাপন করছে, তাদের মধ্যেই এই রোগ ছড়াচ্ছে। 

ব্রিস্টলের একজন যৌন স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞ পিটার গ্রিনহাউজ বলেছেন, কিন্তু এখন দেখা যাচ্ছে পুরুষ সমকামীরাও সুপার-গনোরিয়ায় আক্রান্ত হচ্ছে।পুরুষ সমকামীরা খুব দ্রুত সঙ্গী পরিবর্তন করে। ফলে তাদের মধ্যে এই রোগ দ্রুত ছড়িয়ে পড়ার আশঙ্কাও বেশী। 

উল্লেখ্য, গনোরিয়ার জন্য দায়ী ব্যাকটেরিয়া খুব দ্রুত এন্টিবায়োটিক অকার্যকর করে দিতে সক্ষম। বর্তমানে এই রোগের চিকিৎসায় এজিথ্রোমাইসিন এবং সেফট্রিয়াক্সোন এন্টিবায়োটিক একত্রে ব্যবহার করা হচ্ছে। কিন্তু দেখা যাচ্ছে এজিথ্রোমাইসিন আর কাজ করছে না। চিকিৎসকেরা ভয় পাচ্ছেন খুব শিগগিরই হয়তো সেফট্রিয়াক্সোনও হয়তো গনোরিয়া ব্যাকটেরিয়াকে দমন করতে ব্যর্থ হবে।

Source  : banglamail24

Post a Comment