পদ্মা সেতু হলে মাথাপিছু আয় ৩ হাজার ডলার


শিল্পমন্ত্রী আমির হোসেন আমু এমপি বলেছেন, দেশ খাদ্যে স্বয়ংসম্পূর্ণ হওয়ায় নিজস্ব অর্থায়নে পদ্মা সেতু নির্মাণের কাজ হাতে নিয়েছে। পদ্মা সেতু ও পায়রা বন্দর নির্মিত হলে প্রত্যেকের মাথাপিছু আয় হবে ৩ হাজার ডলার। প্রকল্পসমূহ বাস্তবায়ন হলে ২০১৯ সালের মধ্যেই বাংলাদেশ মধ্যম আয়ের দেশে পদার্পণ করবে।

শনিবার কৃষিপণ্যের উৎপাদন বৃদ্ধির লক্ষ্যে ক্ষুদ্র ও প্রান্তিক চাষীদের মধ্যে বিনামূল্যে বীজ, রাসায়নিক সার ও অন্যান্য উপকরণ বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি আরো বলেন, ১৯৯৬ সালে আওয়ামী লীগ সরকার ক্ষমতায় আসার পরে দেশকে খাদ্যে স্বয়ংসম্পূর্ণ করেছিলো। ২০০১ সাল থেকে ২০০৮ সাল পর্যন্ত যে সরকার যেভাবেই ক্ষমতায় ছিলো তারা ২৬ লক্ষ টন খাদ্য ঘাটতি রেখেছে। ২০০৯ সালে আ.লীগ পুনরায় ক্ষমতায় আসার পরে দেশকে খাদ্যে স্বয়ংসম্পূর্ণ করে ২০১৫ সালে ৫০ হাজার টন চাল শ্রীলঙ্কায় রফতানি করেছে। এ সরকার কৃষকদের উন্নতির জন্য সার ও কীটনাশকে ভর্তুকি এবং জনবসতি এলাকায় লোড শেডিং দিয়ে কৃষকদের সেচ ব্যবস্থা চালু করেছে।

এসময় ৯শ ৫০ জন কৃষকের মাঝে জন প্রতি ৫ কেজি উফশী আউশ, ২০ কেজি ইউরিয়া, ১০ কেজি ড্যাব, ১০ কেজি এমওপি এবং ১০ কেজি নেরিকা আউশ বীজ বিতরণ করা হয়।

অনুষ্ঠানে ঝালকাঠি সদর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ও জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক মো. সুলতান হোসেন খানের সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথি ছিলেন জেলা প্রশাসক মো. মিজানুল হক চৌধুরী, পুলিশ সুপার সুভাষ চন্দ্র সাহা, জেলা পরিষদ প্রশাসক ও জেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি সরদার মো. শাহ আলম, সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট খান সাইফুল্লাহ পনির, জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদফতরের উপপরিচালক শেখ আবু বকর সিদ্দিক, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. মকবুল হোসেন এবং জাতীয় শ্রমিকলীগ জেলা কমিটির আহ্বায়ক ও জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক মোবারেক হোসেন মল্লিকসহ প্রমুখ।

সূত্র : জাগোনিউজ২৪

Post a Comment