যুক্তরাষ্ট্রের আদলে আসছে সৌদি গ্রিনকার্ড


কর্মরত বিদেশিদের স্থায়ী নাগরিকত্ব দেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে সৌদি আরব। ২০২০ সাল থেকে এ সিদ্ধান্ত কার্যকর করার পরিকল্পনা নিচ্ছে সরকার। খ্যাতনামা গণমাধ্যম ব্লুমবার্গকে গত সোমবার এক সাক্ষাতকারে সৌদি আরবের উপ-প্রধানমন্ত্রী ও প্রতিরক্ষামন্ত্রী মোহাম্মদ বিন সালমান সরকারের এ পরিকল্পনার কথা জানান।

উপ-প্রধানমন্ত্রী সালমান জানান, তেল নির্ভর অর্থনীতি থেকে সরে আসতে চাইছে সৌদি আরব। তার অংশ হিসেবে আয়ের উৎস বাড়াতে বিভিন্নমুখী পরিকল্পনা নেয়া হয়েছে বলে জানান সালমান। সে পরিকল্পনার অংশ হচ্ছে কর্মরত বিদেশিদের স্থায়ী নাগরিকত্ব দেয়া।

পরিকল্পনা অনুয়ায়ী, সৌদি আরবে কর্মরত সব বিদেশি নাগরিকদের জন্য এ সুযোগ উন্মুক্ত। আগ্রহী যে কোনো বিদেশি চাইলে নাগরিকত্বের আবেদন জানালে সরকার বিবেচনা করবে। নাগরিকত্বের এ সুযোগ অনেকটা মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের গ্রিনকার্ডের আদলে করা হচ্ছে। নাগরিকত্ব দেয়ার এ প্যাকেজ বাস্তবায়িত হলে প্রায় ১০০ বিলিয়ন মার্কিন ডলার আয় হতে পারে বলে ধারনা করছেন সরকারের নীতি নির্ধারকরা।
সৌদি উপ-প্রধানমন্ত্রী মোহাম্মদ বিন সালমানের এ বক্তব্য আশান্বিত করেছে দেশটির বসবাসরত বাংলাদেশিদের। তারা বলছেন, এ সুযোগ বাংলাদেশিদের জন্য আনন্দের। সৌদি সরকারের এ সম্পর্কিত নীতিমালা বিস্তারিত জানতে অপেক্ষায় আছে বাংলাদেশিরা।

উল্লেখ্য, সৌদি আরবে বর্তমানে ১২ লাখেরও বেশি বাংলাদেশি কর্মরত আছে। যদিও প্রকৃত সংখ্যা আরো অনেক বেশি বলে অভিমত অনেকের। মধ্যপ্রাচ্যের তেল সমৃদ্ধ এ দেশটিতে জনশক্তি রপ্তানি বাড়াতে তৎপরতা চালিয়ে যাচ্ছে বাংলাদেশ সরকার।
সূত্র : বাংলামেইল২৪

Post a Comment