**TRY FREE HUMAN READABLE ARTICLE SPINNER/ARTICLE REWRITER**

ফিদেল কাস্ত্রোর ‘শেষ’ ভাষণ


কিউবায় কমিউনিস্ট পার্টি কংগ্রেসের শেষ দিনে বিরল ও ঐতিহাসিক ভাষণ দিয়েছেন দেশটির স্বাধীনতাকামী বিপ্লবী নেতা ফিদেল কাস্ত্রো। তবে অনেক বিশ্লেষক এই ভাষণকে ফিদেলের শেষ ভাষণ বলে উল্লেখ করেছেন। খবর বিবিসির।

৮৯ বছর বয়সী এই সাবেক প্রেসিডেন্ট তার ভাষণে নিজের বার্ধক্যের কথা স্বীকার করেছেন। কিন্তু দেশটিতে এই মহান নেতার আদর্শ এবং চেতনা সব সময়ই উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত হিসেবে গ্রহণ করা হয়। ভবিষ্যতেও হবে।  

এর আগে ঘোষণা করা হয়েছিল দেশটির বর্তমান প্রেসিডেন্ট রাওল কাস্ত্রো (৮৪) পার্টির প্রধান হিসেবে আরো পাঁচ বছর ক্ষমতায় থাকবেন। ২০১৮ সালে এই নেতা প্রেসিডেন্টের ক্ষমতা ছেড়ে দেবেন।  

তবে কিউবার প্রশাসনিক নিয়ম অনুযায়ী দলের প্রধান প্রেসিডেন্টের সমান ক্ষমতার অধিকারী। তার মানে পরবর্তী পাঁচ বছরের জন্যও ক্ষমতায় থাকবেন রাওল কাস্ত্রো।  

তবে নিজের ভাষণে এবার এমন কিছু বিষয় ফিদেল কাস্ত্রো প্রকাশ করেছেন যা আগে কখনোই করেননি। ভাষণে কাস্ত্রো বলেন, আমি শীঘ্রই ৯০য়ে পা দিচ্ছি। এটা এমন কিছু যা আমি কখনও কল্পনা করিনি। আমি জানি এই দীর্ঘায়ু আমি নিজের প্রচেষ্টায় অর্জন করিনি। এটা পুরোটাই ভাগ্যের ব্যাপার। আর শিগগিরই আমি অন্যদের মতো হয়ে যাব। পালাক্রমে আমাদের সবার ক্ষেত্রেই এটা ঘটবে। 

দীর্ঘদিন পর জনসমুক্ষে দেয়া মঙ্গলবারের ভাষণে নিজের মৃত্যুশঙ্কার কথা ব্যক্ত করেছেন এই মহান নেতা। সমাজ টিকিয়ে রাখতে সাম্যের আহ্বানও জানিয়েছেন তিনি।

টেলিভিশনে প্রচারকালে ফিদেল কাস্ত্রোর এই ভাষণ শুনে তার ভক্তদের কাঁদতে দেখা গেছে।
সূত্র : জাগোনিউজ২৪

Post a Comment