দক্ষিণ এশিয়ায় শক্তিশালী ভূমিকম্প : পাকিস্তানে নিহত ২


রিখটার স্কেলে ৬ দশমিক ৬ মাত্রার শক্তিশালী ভূকম্পনে কেঁপে উঠেছে দক্ষিণ এশিয়া। পাকিস্তান, আফগানিস্তান ও ভারতের বিভিন্ন প্রদেশে ওই কম্পন অনুভূত হয়েছে। এ ঘটনায় এখন পর্যন্ত পাকিস্তানে দুইজন নিহত ও অন্তত ২৭ জনের আহত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। 

মার্কিন ভূতাত্ত্বিক জরিপ সংস্থা বলছে, আফগানিস্তানের রাজধানী কাবুল থেকে ২৮২ কিলোমিটার উত্তর-পূর্বাঞ্চলে ৬ দশমিক ৬ মাত্রার ওই কম্পনের উৎপত্তি হয়েছে। স্থানীয় সময় বিকেল ৩টা ৫৮ মিনিটে কেঁপে উঠেছে দক্ষিণ এশিয়ার বিভিন্ন অংশ।

পাকিস্তানের প্রভাবশালী দৈনিক ডনের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, পেশোয়ারের লেডি রিডিং হাসপাতালে ভূমিকম্পে আহত ২৭ জনকে ভর্তি করা হয়েছে। হাসপাতালের মুখপাত্র ড. খালিদ মাসুদ বলেন, এদের মধ্যে অনেকেই প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়ে হাসপাতাল ছেড়েছেন। তবে সবার অবস্থা স্থিতিশীল বলে তিনি জানিয়েছেন।

আফগানিস্তানের রাজধানী কাবুল ও পাকিস্তানের ইসলামাবাদেও কম্পন অনুভূত হয়েছে। এ দুই শহরের বাসিন্দারা কম্পনের সময় আতঙ্কিত হয়ে ঘরবাড়ি ছেড়ে রাস্তায় নেমে আসেন।

এছাড়া লাহোর, রাওয়ালপিন্ডি, পেশোয়ার, সোয়াত, চিত্রাল, মারদান, কোহাট, হ্যাঙ্গু, স্যাংলাসহ ভারতের রাজধানী নয়াদিল্লিও কেঁপে উঠেছে। সতর্কতা হিসেবে কম্পনের সময় দিল্লির মেট্রো সেবা কয়েক মিনিটের জন্য বন্ধ হয়ে যায়। কাশ্মীর, চন্ডিগর প্রদেশসহ ভারত নিয়ন্ত্রিত কাশ্মীরেও লোকজনকে রাস্তায় নেমে আসতে দেখা গেছে।

শ্রীনগর থেকে এএফপির প্রতিনিধি জানান, লোকজন রাস্তায় অবস্থান করছে। তবে এ এলাকায় কোনো হতাহতের খবর পাওয়া যায়নি। 

আফগানিস্তানের জাতীয় দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষের মুখপাত্র ওমর মোহাম্মদি বার্তাসংস্থা রয়টার্সকে বলেন, কর্মকর্তারা তথ্য সংগ্রহ করছেন, তবে এখন পর্যন্ত কোনো ধরনের ক্ষয়ক্ষতি ও প্রাণহানির খবর পাওয়া যায়নি।

গত বছরের ১৫ অক্টোবর পাকিস্তানে সাড়ে ৭ মাত্রার শক্তিশালী ভূমিকম্পের আঘাতে ৩ শতাধিক মানুষের প্রাণহানি ঘটে। ক্ষতিগ্রস্ত হয় হাজার হাজার ঘর-বাড়ি। এক দশক আগে ৭ দশমিক ৬ মাত্রার কম্পনে পাকিস্তানে অন্তত ৭৫ হাজার মানুষ নিহত হয়।

Source : jagonews24

Post a Comment