শ্রীপুরে এলাকাবাসীর স্বেচ্ছাশ্রমে রাস্তা সংস্কার

গাজীপুরের শ্রীপুরে গ্রামবাসী স্বেচ্ছাশ্রমে সরকারি রাস্তা সংস্কার করেছে। শনিবার সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত অর্ধশতাধিক যুবক, বৃদ্ধ এবং শিক্ষার্থীরা সংস্কার কাজে অংশগ্রহণ করেন।

বরমী ইউনিয়নের পোষাইদ আদিবাসী পাড়া থেকে টেংরা গণস্বাস্থ্য পর্যন্ত প্রায় এক কিলোমিটার রাস্তা তারা স্ব-উদ্যোগে সংস্কার করেন। তবে সামান্য সরকারি সহযোগিতা পেলে কাদামাটি থেকে রক্ষা পেতে পারেন বলে দাবি করেছেন পোষাইদ গ্রামবাসী।

সরেজমিন গিয়ে দেখা গেছে, কোদাল, ঝুড়ি এবং চটের বস্তা দিয়ে জমি থেকে মাটি বহন করে রাস্তা ভরাট করছে। গ্রামবাসী জানায়, রাস্তাটি দিয়ে এলাকার শিক্ষার্থী, কৃষক ও গৃহিণীসহ সবাই উপজেলা সদরে যাতায়াত করে। ইউনিয়ন পরিষদের মেম্বার ও চেয়ারম্যান গত পাঁচ বছরে এক মুঠো মাটিও রাস্তা সংস্কারে ব্যবহার করেননি।

যুবকরা জানায়, নির্বাচন এলেই প্রার্থীরা অবকাঠামো উন্নয়নের প্রতিশ্রুতি দেন। নির্বাচন শেষ হলে কেউ কথা রাখেন না। ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে প্রার্থীদের চোখে আঙুল দিয়ে দুরবস্থা দেখানোর জন্যই আমাদের এ উদ্যোগ।
পোষাইদ গ্রামের মফিজ উদ্দিন বলেন, ‘ভৌগোলিকভাবে তেলিহাটী ইউনিয়নের ভেতরে ঢুকে গেছে পোষাইদ গ্রাম। কিন্তু খাতাপত্রে এটি বরমী ইউনিয়নের একটি গ্রাম। ফলে এ গ্রামে অবকাঠামোগত কোনো উন্নয়ন হয় না।
যুবক বিশ্বজিৎ চন্দ্র বর্মণ বলেন, ‘মাটিভর্তি ট্রাকের কারণে রাস্তাটি চলাচলের অনুপযোগী হয়ে পড়েছে।’ আরেক যুবক আলম বলেন, ‘পোষাইদ সমাজকল্যাণ যুব সংঘের সদস্যরা উদ্যোগ নিয়ে গ্রামবাসীকে রাস্তা সংস্কারে একত্রিত করেছে।’

গৃহিণী শ্রীমতি রতœা রাণী বর্মণ বলেন, ‘বর্ষাকালে আমাদের ছেলে-মেয়েদের কাদামাটি গায়ে মেখে স্কুলে যেতে হয়। শিক্ষকরা না জানার কারণে ওই পরিবেশে তাদের শ্রেণীকক্ষে প্রবেশ করতে দেয় না। জনপ্রতিনিধি ও সরকারের সুদৃষ্টি আমাদের যাতায়াতের পথ সুগম করতে পারে।
এ ব্যাপারে বরমী ইউনিয়ন পরিষদের ৪নং ওয়ার্ডের সদস্য হারুন অর রশীদ জানান, বরাদ্দ না পাওয়ায় এলাকার পোষাইদের রাস্তাটি মেরামত করা যায়নি। একই কথা বলেন ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আব্দুর রাজ্জাক বেপারী।
সূত্র : জাগোনিউজ২৪

Post a Comment