বাংলাদেশিদের ভিসা ব্যবস্থা পুনর্গঠন করছে ভারত

বাংলাদেশিদের জন্য ভিসা ব্যবস্থা পুনর্গঠনের প্রস্তাব করেছে ভারতের পররাষ্ট্র দফতর। নতুন এই প্রস্তাবনায় বলা হয়েছে, ১৯৭১ সালে পাকিস্তানের সঙ্গে লড়াইয়ে অংশ নেওয়া বাংলাদেশি মুক্তিযোদ্ধাদের জন্য ভিসা পদ্ধতি আরো সহজ করা হবে। 

এছাড়া, ঘনঘন ভ্রমণকারীদের জন্য ইলেক্ট্রনিক ভিসা চালু হবে। কলকাতার প্রভাবশালী ইংরেজি দৈনিক দ্য টেলিগ্রাফের এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়েছে। তবে পররাষ্ট্র দফতরের এই প্রস্তাবনায় উদ্বেগ প্রকাশ করেছে দেশটির স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়। 

ভারতে সম্প্রতি ১৪৭টি দেশের জন্য ইলেক্ট্রনিক ভিসা চালু করা হয়েছে। যা ইটিভি নামে পরিচিত। নয়া দিল্লির পররাষ্ট্র দফতর বাংলাদেশের জন্যও এই ভিসা চালুর প্রস্তাব করেছে। এর মাধ্যমে গুরুত্বপূর্ণ পর্যটকরা অনলাইনে ভিসার জন্য আবেদন করে ইটিভি ভিসা পাবেন। পরে ভারতে অবতরণের পর তারা অন অ্যারাইভাল ভিসা পাবেন। 

বাংলাদেশি মুক্তিযোদ্ধাদের জন্য ভিসা পদ্ধতি আরো সহজ করতে ভারতীয় পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় আরেকটি প্রস্তাব করেছে। মন্ত্রণালয় বলছে, মুক্তিযোদ্ধারা এখন জ্যেষ্ঠ নাগরিক এবং ভারত বাংলাদেশের স্বাধীনতা যুদ্ধে সহায়তা করেছে। এজন্য তারা নয়াদিল্লির প্রতি আগ্রহী। আর এ বিষয়টি বিবেচনা করে সরকারের উচিত মুক্তিযোদ্ধাদের জন্য ভিসা সহজ করা। 

এদিকে, নতুন এ প্রস্তাবনা বাস্তবায়ন বাংলাদেশ এবং ভারতের দুই পক্ষের সদ্বিচ্ছার ওপর নির্ভর করছে বলে সতর্ক করে দিয়ে দেশটির ঊর্ধ্বতন এক কর্মকর্তা বলেন, সরকারের সঙ্গে সরকারের সম্পর্ক বৃদ্ধি করতে সম্প্রসারিত এ উদ্যোগ সীমান্ত এলাকায় নয়াদিল্লির জন্য আঘাত হতে পারে। 

টেলিগ্রাফ বলছে, ভারতে পর্যটকের জন্য বাংলাদেশ এখন বৃহৎ একটি উৎস। ২০১৫ সালের প্রথম ১০ মাসে বাংলাদেশ থেকে অন্তত ৯ লাখ পর্যটক ভারত ভ্রমণ করেছে। আর এ সংখ্যা যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য ও অন্যান্য দেশের চেয়ে বেশি। 

বাংলাদেশে নিযুক্ত সাবেক ভারতীয় হাই কমিশনার পিনাক রঞ্জন চক্রবর্তী বলেন, আমরা যদি দক্ষিণ এশিয়ার অর্থনৈতিক অঞ্চলের সঙ্গে যোগাযোগ বৃদ্ধি করতে আন্তরিক হই, তাহলে এক সময় বাংলাদেশ থেকে ভারত ভ্রমণ লোকজনের জন্য সহজ হবে। তবে এতে সন্ত্রাসীরা যাতে ভিসা না পায় সেবিষয়ে সতর্ক করে দেন তিনি। 
সূত্র : জাগোনিউজ২৪

Post a Comment