ক্যালসিয়ামযুক্ত এই ৮টি খাবার খাওয়া উচিত প্রতিটি নারীর


প্রতিটি মানুষের জন্য ক্যালসিয়ামযুক্ত খাবার প্রতিদিনকার খাদ্য তালিকা রাখা উচিত। বিশেষত নারীদের নিয়মিত ক্যালসিয়ামযুক্ত খাবার খাওয়া প্রয়োজন। বর্তমান সময়ে নারীরা সবচেয়ে বেশি জয়েন্ট পেইন, হাড়ের ব্যথা, কোমরে ব্যথা, হাড়ের সমস্যায় ভুগে থাকেন। ক্যালসিয়াম হাড় মজবুত করার পাশাপাশি রক্ত কোষ তৈরি করে থাকে। শুধুমাত্র ক্যালসিয়াম সাপ্লিমেনট অথবা ক্যালসিয়ামযুক্ত খাবার খাওয়া শরীরের জন্য প্রয়োজন নয়, এই ক্যালসিয়াম শরীরে মানিয়ে নেওয়ার অন্য ভিটামিন ডি এর প্রয়োজন রয়েছে। তাই ক্যালসিয়ামযুক্ত খাবারের সাথে ভিটামিন ডি যুক্ত খাবারও প্রতিদিনকার ডায়েটে রাখা প্রয়োজন। এমনই কিছু খাবার যা প্রতিটি নারীর খাদ্যতালিকায় রাখা উচিত-

১। দুধ

ক্যালসিয়ামের অন্যতম উৎস হল দুধ। প্রতিটি নারীর প্রতিদিন কমপক্ষে এক গ্লাস করে দুধ পান করা উচিত। এক গ্লাস দুধে কিছু পরিমাণ প্রোটিন পাউডার মিশিয়ে পান করুন।

২। কাঠবাদাম

এক কাপ ভাজা কাঠবাদাম থেকে ৪৭৫ মিলিগ্রাম ক্যালসিয়াম পাওয়া যায়। তবে এটি প্রতিদিন খাওয়া উচিত নয়, এক কাপ কাঠবাদাম থেকে প্রায় ১০০০ ক্যালোরি পাওয়া যায়।

৩। টকদই

অনেকেই দুধ খেতে পারেন না অথবা দুধে তাদের অ্যালার্জি রয়েছে। তারা টকদই এর মাধ্যমে তাদের ক্যালসিয়ামের চাহিদা পূরণ করে থাকে। টকদই থেকে আপনি একই পরিমাণ ক্যালসিয়াম পেয়ে থাকবেন।

৪। পনির

দুগ্ধ জাতীয় খাবারের মধ্যে পনির অন্যতম। পারমেজান চিজে সবচেয়ে বেশি পরিমাণে ক্যালসিয়াম রয়েছে। দুধের পরিবর্তে পারমেজান চিজ খাদ্য তালিকায় রাখতে পারেন।

৫। সবুজ শাক সবজি

দুধ এবং দুগ্ধ জাতীয় খাবারের পাশাপাশি সবুজ শাক সবজিও ক্যালসিয়ামের খুব ভাল উৎস। পালং শাক, ব্রকলি, শালগম পাতা ইত্যাদি সবুজ শাক সবজিতে প্রচুর পরিমাণে ক্যালসিয়াম রয়েছে।

৬। তিল

সাদারণত বার্গারের বনরুটিতে তিল ব্যবহার করা হয়ে থাকে। এই তিল রক্ত চাপ হ্রাস করে, ইনফ্লামেশন দূর করে, এমনকি ক্যান্সার প্রতিরোধে সাহায্য করে থাকে। শুধু কি তাই, এক টেবিল চামচ তিল থেকে ৮৮ মিলিগ্রাম ক্যালসিয়াম পাওয়া যায়।

৭। চিংড়ি

মজাদার এই মাছটি থেকে আপনি ক্যালসিয়াম পেতে পারেন, যদি এটি অল্প আঁচে রান্না করেন। চিংড়ি মাছ খুব বেশি রান্না করবেন না। এতে এর ক্যালসিয়ামের পরিমাণ কমে যাওয়া সম্ভাবনা থাকে।

৮। কমলা

ভিটামিন সি এবং ক্যালসিয়াম সমৃদ্ধ এই ফলটি প্রতিদিনের নাস্তায় রাখুন। অথবা প্রতিদিনের নাস্তায় এক গ্লাস কমলার রস পান করুন। একটি মাঝারি আকৃতির কমলা থেকে ৬৫ মিলিগ্রাম ক্যালসিয়াম পাওয়া যায়।

এছাড়া সামুদ্রিক মাছ যেমন স্যামন, সার্ডিন ইত্যাদি সামুদ্রিক মাছে প্রচুর পরিমাণে ক্যালসিয়াম রয়েছে।


Source: Priyo


Post a Comment