হাজারো শতাব্দীর ভোগান্তি কষ্ট দেয় ওবায়দুল কাদেরকে

শামসুন্নাহার শতাব্দী নামে এক স্কুলছাত্রীর অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে তাৎক্ষণিকভাবে শেওড়া বাসস্ট্যান্ড থেকে মহাখালী পর্যন্ত একটি বিশেষ বাস সার্ভিস চালু করিয়েছেন সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। শতাব্দীর অভিযোগ ছিল, সে রাস্তায় দাঁড়িয়ে বাস পায় না, স্কুলে যেতে দেরি হয়। মন্ত্রী তার এ ভোগান্তি দূর করলেও তৃপ্তির ঢেঁকুড় তুলছেন না, বরং বলছেন- হাজারো শতাব্দীর ভোগান্তি তাকে কষ্ট দেয়।    

সোমবার দুপুরে বিআরটিসি ভবনে আয়োজিত এক আলোচনা সভায় এ কথা বলেন তিনি।

ওবায়দুল কাদের বলেন, ঘুরে দেখেছি হাজার শতাব্দীরা সঠিক সময়ে সঠিক স্থানে পরিবহন না পেয়ে ভোগান্তিতে। আমি না হয় এক শতাব্দীকে বাস দিতে পেরেছি। কিন্তু হাজার শতাব্দীকে দিতে পারিনি। তাদের ভোগান্তি আমাকে কষ্ট দেয়, আত্মতৃপ্তি তাই আসে না।

মন্ত্রী বলেন, চট্টগ্রামে এক অনুষ্ঠানে এক মেয়ে আমাকে মহিলা বাস সার্ভিস না থাকায় ভোগান্তির কথা জানিয়েঝিল। সেখানে বসেই আমি বিআরটিসি চেয়ারম্যানকে ফোন করে বিআরটিসি মহিলা বাস সার্ভিস চালুর কথা বলি। পর দিনই সেটা চালু হয়েছে।

শতাব্দীর প্রসঙ্গ তুলে মন্ত্রী বলেন, আমি তার দৃঢ়তায় মুগ্ধ। ভোগান্তি শুধু শতাব্দীর নয়, ওই এলাকার সব নারীরই। তাই বিআরটিসি চেয়ারম্যানকে বলে মহিলা বাস সার্ভিস চালু করেছি।

মন্ত্রী বলেন, এক শতাব্দীর অনুরোধ আমি মন্ত্রী রক্ষা করতে পেরেছি। এই দৃশ্য শুধু ঢাকার নয়, সব স্থানেই। মফস্বলে আরো বেশি। কিন্তু দিতে পারছি কতোটা?

জনগণের দাবি ও অধিকার আদায়ে কাজ করতে না পারলে সততার কোনো দাম নেই বলেও উল্লেখ করেন ওবায়দুল কাদের। 
সূত্র : জাগোনিউজ২৪

Post a Comment