বৈশাখী সাজে বাঙালি নারী


বাঙালি প্রাণের উৎসবে মাতে পহেলা বৈশাখে। সব ভেদাভেদ ভুলে সবার মনে বয়ে যায় একই আনন্দ। তাই মাতামাতিটা একটু বেশিই থাকে। পহেলা বৈশাখ মানেই ঘোরাঘুরি, আড্ডা অনুষ্ঠান আর একটু বাড়তি সাজ। দিনভর সুন্দর সাজে নিজেকে পরিপাটিও দেখতে চান সবাই। সেজন্য দরকার আরামদায়ক সুন্দর সাজ।

শাড়ি-ব্লাউজ

পহেলা বৈশাখে সাজটি হতে হবে অন্যান্য সময়ের থেকে বর্ণিল। বৈশাখে তীব্র গরমে শান্তি পেতে পোশাক নির্বাচনে সতর্ক হতে হবে। এক্ষেত্রে সুতির শাড়ি বা সালোয়ার কামিজ বেশি আরামদায়ক। শাড়ির ক্ষেত্রে আপনি তাঁতের শাড়ি, ঢাকাই জামদানি বা টাঙ্গাইলের শাড়ির প্রাধান্য দিতে পারেন। বর্তমানে শাড়িতে ব্লক-বাটিক, এ্যাম্ব্রয়ডারি এবং স্ক্রিন প্রিন্টের কাজ বেশ চলছে। খেয়াল রাখতে হবে সেটা যেন একটু উজ্জ্বল রঙের হয়। সাদা-লাল, সাদা-সবুজ, অথবা সাদার সঙ্গে অন্য যে কোন রঙের মিশ্রণ হোক না কেন, সেটা অবশ্যই উজ্জ্বল হতে হবে। বৈশাখে শুধু যে সাদা-লালই পরতে হবে এমন কোন কথা নেই। আপনি আপনার পছন্দ মতো যে কোনো শাড়িই পরতে পারেন। শাড়ির সঙ্গে ব্লাউজের রঙ এবং ডিজাইনেও আনতে পারেন কিছুটা চমক। এক্ষেত্রে আপনি ব্লাউজে বিভিন্ন ডিজাইন দিয়ে তৈরি করতে পারেন। ব্লাউজটি হতে হবে উজ্জ্বল রঙের। এটি আপনি আপনার পছন্দ মতো ছোট হাতা, থ্রি-কোয়ার্টার অথবা ফুলহাতা যেভাবে খুশি পরতে পারেন, এটি আপনার স্বাচ্ছন্দ্যের ওপর নির্ভর করবে। ব্লাউজের ক্ষেত্রেও সুতি কাপড় ব্যবহার হবে বুদ্ধিমানের কাজ, এটি গরমে বেশ আরামদায়ক হবে।

সাজগোজ
রমণীদের সাজগোজের অন্যতম একটি বিষয় হচ্ছে সুন্দর মেকআপ। এক্ষেত্রে আপনাকে অবশ্যই আগের দিন ফেসিয়াল করে নিতে হবে, যার ফলে মেকআপ সহজেই মুখে বসে যাবে। যদি পার্লারে গিয়ে মেকআপ করা সম্ভব না হয়, তাহলে ঘরে বসেই ফেসিয়াল করে নিতে পারেন।

রেশমি চুড়ি

বঙ্গ ললনাকে চুড়ি ছাড়া কল্পনাই করা যায় না। যেহেতু বৈশাখ, সেহেতু আপনি আপনার দুহাতে কাঁচের রেশমি চুড়ি পরতে পারেন। অথবা মাটির চুড়ি ও গহনা পরে নিজেকে সাজিয়ে নিতে পারেন।

চোখ

চোখের সাজ ছাড়া বাঙালি ললনাকে কল্পনাই করা যায় না। আর সেটা যদি হয় পহেলা বৈশাখ, তাহলে তো কথাই নেই। চোখ মানুষের সৌন্দর্যের আলাদা একটি আকর্ষণ। পোশাকের সঙ্গে মিলিয়ে চোখে স্যাডো দিতে পারেন। এই সাজ আপনার চোখকে আকর্ষণীয় করে তুলবে।

ঠোঁট

নিজেকে আকর্ষণীয় করে তুলতে ঠোঁটের সাজও গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখে। আপনার বৈশাখী পোশাকের সঙ্গে মিলিয়ে লিপিস্টিকের ব্যবহার করতে পারেন। এতে লাল বা অন্য কোন রঙের লিপিস্টিক ব্যবহার করতে পারেন। তবে বৈশাখীতে লালের ব্যবহার বেশিই হয়।

চুল

চুল বাঙালি নারীর অহঙ্কার। পোশাকের সঙ্গে চুলের সাজ অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। যদি চুল স্ট্রেইট হয়, তাহলে চুলে খোপা বা বেণী করে নিতে পারেন। তবে সারা দিনের জন্য খোপা করাটাই বুদ্ধিমতির কাজ। এছাড়া আপনি বিভিন্ন সাজে আপনার চুলকে সাজাতে পারেন। তবে অবশ্যই চুলে ফুল থাকা চাই। এক্ষেত্রে গোলাপ, গাদা, গাজরা, বেলি কিংবা জুঁই ফুলের মালা লাগাতে পারেন।
সূত্র : বাংলামেইল২৪

Post a Comment