আসল আইফোন চেনার উপায়


জনপ্রিয়তার বিচারে অ্যাপলের আইফোনের চাহিদা সবসময় তুঙ্গে।  যুক্তরাষ্ট্রের এই প্রযুক্তি পণ্য নির্মাতা প্রতিষ্ঠান সারা পৃথিবীতে নেতৃত্ব দিয়ে আসছে তাদের আকর্ষণীয় ফোনগুলো দিয়ে। আইফোনের  বৈশিষ্ট্য, ডিজাইন ইত্যাদি বিষয় আইফোনকে করেছে অনন্য। আইফোন গুণে যেমন অতুলনীয়, দামেও তেমন। তাই বাজারে নকল আইফোনও মেলে। তাই আইফোন কেনার আগে জেনে নিন সেটি আসল না নকল। 

স্ক্রু’র গঠন
আসল আইফোনে ব্যবহার করা হয় প্যান্টালোব স্ক্রু। নকল আইফোনে থাকে সাধারণ ক্রস স্ক্রু। তাই খুব সহজে আইফোনে আসল না নকল জানার জন্য স্ক্রুর দিকে নজর দিন। 

বাটনগুলো লক্ষ্য করুন
আসল আইফোনে ডানপাশের ওপরের দিকে থাকে স্লিপ/ওয়াক বাটনটি। আর ভলিউম সুইচ গুলো থাকে বামপাশের ওপরের দিকে। যদি এই ডিজাইনের বাইরে আইফোনের বাটন থাকে, তাহলে বুঝতে হবে ফোনটি নকল। 

স্ক্রিনের দিকে তাকান
আসল আইফোনের স্ক্রিন রেজুলেশন থাকবে পরিস্কার এবং সবদিক থেকেই স্ক্রিনটি আপনি দেখতে পাবেন। নকল আইফোনের ডিসপ্লে এতটা পরিস্কার থাকে না। 

ব্যাকপার্টে দেখুন অ্যাপেলের চিহ্ন
আইফোন যেহেতু অ্যাপলের পণ্য, তাই প্রত্যেকটি আইফোনের পেছনেই রয়েছে অ্যাপলের লোগো। যদি ফোনটির ব্যাকপার্টে অ্যাপলের লোগো না থাকে, তাহলে ফোনটি আসল নয়। 

চেক করুন সিরিয়াল নম্বর
ফোনটির সেটিংস অপশনে প্রবেশ করুন। ‘এবহবৎধষ’ সিলেক্ট করে ‘অনড়ঁঃ’ এ টাচ করুন। ওখানে একটি সিরিয়াল নম্বর প্রদর্শিত হবে। এবার অ্যাপলের ওয়েবসাইটে ঢুকুন। ‘আপনার সিরিয়াল নম্বরটি দিন যদি আপনার আইফোনটি আসল হয়’ অপশনে সিরিয়াল নম্বরটি দিন। যদি ওয়েবসাইট সিরিয়ালটি শনাক্ত করতে না পারে বুঝতে হবে আইফোনটি নকল। 

মেমোরি চেক করুন
ফোনটির ব্যাককভার খুলে দেখুন কোন মেমোরিকার্ড স্লট রয়েছে কি না অথবা পাশে? যদি থাকে, তাহলে নিশ্চিত থাকুন ফোনটি নকল। আইফোনে অতিরিক্ত মেমোরি কার্ড স্লট থাকে না। ফিক্সড মেমোরিতে আইফোনের মেমোরি ১৬, ৩২ অথবা ৬৪ জিবি হয়। 

ওয়েলকাম স্ক্রিন চেক করুন
আইফোনটি অন করুন। যদি অন হওয়ার সময় প্রথম স্ক্রিনে ওয়েলকাম লেখা থাকে, তাহলে সেটটি নকল। আসল আইফোনে ফোনটি চালু হবার সময় শুধু অ্যাপলের চিহ্ন থাকে। অন হওয়ার পর আইফোন স্টোরে প্রবেশের একটি আইকন থাকে। টাচ করুন আইকনটিতে। যদি আপনাকে গুগল স্টোরে নিয়ে যায়, তাহলে ফোনটি নকল। 

সিরি অ্যাপসটি খুঁজে দেখুন
এই অ্যাপসটি শুধুমাত্র আসল আইফোনে কাজ করে। নকল আইফোনে অ্যাপসটি রান করতে পারে না। 

আইটিউনসে প্রবেশ করুন
আইফোনটি কম্পিউটার অথবা ল্যাপটপে প্রবেশ করান। আইটিউনস সফটওয়্যারটি দিয়ে মোবাইলে প্রবেশের চেষ্টা করুন। যদি প্রবেশ করা যায়, তাহলে ফোনটি আসল। 

ফন্ট চেক করুন
আইফোনের মেসেজ অপশনে গিয়ে ফন্ট চেক করুন। যদি আইফোনে চাইনিজ ফন্ট থাকে, তাহলে ফোনটি আসল নয়। 

কয়টি সিম কার্ড ব্যবহার করা যায় দেখুন
আইফোনে একটির বেশি সিমকার্ড ব্যবহার করা যায় না। যদি আইফোনে দুই বা ততোধিক সিম ব্যবহার করার অপশন থাকে, তবে ফোনটি নিশ্চিত নকল। 

দাম বিচার করুন
যদি আসল আইফোনের মূল্যের সাথে দামের পার্থক্য অত্যাধিক হয় তাহলেও বুঝে নিতে পারেন ফোনটি আসল নয়। 

শখের ফোনটি কেনার আগে বিষয়গুলো যাচাই করুন। আর আসল আইফোন ব্যবহার করার স্বাচ্ছন্দ্যে থাকুন।  
সূত্র : বাংলামেইল২৪

Post a Comment