নাস্তার ফোনেই গ্রেফতারের বিষয়টি নিশ্চিত হয় পরিবার


জ্যেষ্ঠ সাংবাদিক ও উপস্থাপক শফিক রেহমানকে শনিবার সকাল সাড়ে ৮টার দিকে ডিবি পরিচয়ে তুলে নিয়ে যাওয়ার দেড় ঘণ্টা পার হলেও গ্রেফতারের বিষয়টি গোপন রাখে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী। তবে সকাল ১০টার দিকে ডিবি অফিস থেকে ফোন করে শফিক রেহমানের ওষুধ ও সকালের খাবার চাওয়া হলে পরিবার গ্রেফতারের বিষয়টি নিশ্চিত হয়। এমনটিই জানিয়েছেন ‘মৌচাকে ঢিল’ এর সহ-সম্পাদক সজীব-ও-নাসিস। সকালে গ্রেফতারের খবরে ১৫ ইস্কাটনের বাসায় গেলে এতথ্য জানান তিনি।

তিনি বলেন, সকাল সাড়ে ৮টায় ডিবি পরিচয়ে তুলে নিয়ে যাওয়ার পর আপা (শফিক রেহমানের স্ত্রী) আমাকে মোবা্ইলফোনে কল করে জানান। আমি আসার পর বিভিন্নভাবে ডিবি, থানা ও র্যাছবে কল দিয়ে জানতে চাইলে কেউ গ্রেফতারের বিষয়টি নিশ্চিত করেনি।  

পরে ১০টার দিকে ডিবি পুলিশ নাস্তা ও ওষুধ চেয়ে টেলিফোন করলে আমরা নিশ্চিত হই।

তিনি আরও বলেন, আমরা জানি না ঠিক কোন কারণে তাকে আটক করা হয়েছে। তবে আমরা শুনতে পাচ্ছি পল্টন থানায় ২০১৫ সালে দায়ের করা একটি রাষ্টদ্রোহ মামলায় তাকে গ্রেফতার করা হয়েছে। মামলাটি সম্পর্কে আগে থেকে পরিবার কিছু  জানতো না বলেও জানান তিনি।
সূত্র : জাগোনিউজ২৪

Post a Comment