**TRY FREE HUMAN READABLE ARTICLE SPINNER/ARTICLE REWRITER**

গরমে চাই আরামদায়ক পোশাক


গ্রীষ্মের গরমে সবাই চায় স্বস্তি। ঋতু পরিবর্তনের পাশাপাশি গরমের তিব্রতা বাড়তে থাকে। তাই বলেতো দৈনন্দিন কাজকর্ম ফেলে রাখা যায় না। গরমের সাথে তাল মিলিয়ে চলতে হলে পোশাকেও আনতে হবে পরিবর্তন। আরাম পাওয়ার জন্য পোশাক নির্বাচনে আলাদা গুরুত্ব দেওয়ার কোন বিকল্প নেই।

পোশাকে আরামের কথা চিন্তা করলেই প্রথমে মাথায় আসে সুতি কাপরের কথা। সুতি কাপর স্বস্তির পাশাপাশি সৌন্দর্য্য বৃদ্ধি করে। পরতে বেশ আরাম এবং সহজেই ঘাম শুষে নেয়। চাইলে পরতে পারেন ব্লক করা, টাই-ডাই, এমব্রয়ডারি, সুতার কাজ করা পোশাকও।

সুতি কাপরের পাশাপাশি পরতে পারেন শিফন, কটন, কোটা, ধূপিয়ান, লিলেন, জামদানি, বাটিক। উৎসব কিংবা রাতের কোন অনুষ্ঠানে পরতে পারেন পাতলা চোষা কাতান, লিলেন, জামদানি শাড়ি। এছাড়া সাদা, হালকা বেগুনি, চেক, একরঙা ব্যান্ড কলারের ফতুয়া ও কুর্তাও পরতে পারেন। টাইডাইয়ের কামিজ বা ফতুয়া খুব সহজেই মানিয়ে যায় সবাইকে। পরতেও আরামদায়ক আর ট্রেন্ডি লুকও আনে।

ছেলেরা বেছে নিতে পরেন টি-শার্ট, হাফ শার্ট। একটু আরাম দায়ক ঢিলেঢালা পোশাক আপনাকে দিবে প্রশান্তি। এছাড়া রঙ ও নকশায় একটু ফ্যাশন সচেতন হলে টি-শার্ট পরে বিভিন্ন অনুষ্ঠানেও যেতে পারবেন।

গরমে খুব গাঢ় রঙ নির্বাচন না করাই ভালো। চোখের প্রশান্তির জন্য হালাকা রঙ ভালো। এ ক্ষেত্রে সাদা হতে পারে আদর্শ রঙ। এছারাও আকাশি, সবুজ, ধূসর, হালকা গোলাপি, ম্যাজেন্টা পরতে পারেন। কালো রঙের পোশাক এড়িয়ে চলুন। কারণ কালো রঙের পোশাক অতিরিক্ত তাপ শোষণ করে।

গরমে নির্বাচন করুন আরামদায়ক পোশাক। এতে করে যেমন থাকবেন প্রশান্তিতে তেমনি থাকবেন প্রফুল্ল।
সূত্র : জাগোনিউজ২৪

Post a Comment