বন্দি সেনাদের বিষয়ে পুতিন-পেট্রোর ফোনালাপ


উচ্চ পর্যায়ের বন্দিদের ভাগ্য নির্ধারণের বিষয়ে ফোনে আলোচনা করেছেন রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন ও ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট পেট্রো পোরোশেনকো। তাদের এই আলোচনার মাধ্যমে দু`দেশের মধ্যে উচ্চ পর্যায়ের বন্দি বিনিময়ের সম্ভাবনা আরো জোরালো হলো। খবর বিবিসির। 

সম্প্রতি রাশিয়ার বিশেষ বাহিনীর দুই সদস্যকে সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডসহ বেশ কিছু অপরাধের কারণে সাজা দিয়েছে ইউক্রেন। ওই রুশ সদস্যদের আটকের পরপরই দু`দেশের প্রধান নিজেদের মধ্যে কথা বললেন। ইয়েভগেনি ইয়েরোফেয়েভ এবং আলেকজান্ড্রোভ নামের দুই রুশ সেনা ইউক্রেনের সংঘর্ষে রুশ বিদ্রোহীদের সঙ্গে ছিলেন বলে তাদের আটক করা হয়। 

অন্যদিকে গত মার্চে ইউক্রেনের নাগরিক নাদিয়া সাভচেনকোকে রাশিয়ার আদালতে ২২ বছরের কারাদণ্ড দেওয়া হয়। গোলাবারুদ ছুড়ে দুই রুশ সাংবাদিককে হত্যার অভিযোগে ২০১৫ সালে তাকে আটক করে ইউক্রেনের পূর্বাঞ্চলীয় সশস্ত্র রুশপন্থীরা। 

২০১৪ সালে ক্রিমিয়া উপদ্বীপকে মস্কোর অন্তর্ভূক্ত করার পর থেকে রাশিয়া ও ইউক্রেনের মধ্যকার সম্পর্কের চরম অবনতি দেখা দেয়। আর একারণেই এক দেশ অন্যদেশের লোকদের ধরে সাজা দিয়ে আসছে। কিন্তু এই সাজার আওতায় পড়ে গেছে বেশ কয়েকজন সেনা সদস্য। এ বিষয়ে নিজেদের মধ্যে বোঝাপড়া করে নিতে চান দু`দেশের প্রধান। 
সূত্র : জাগোনিউজ২৪

Post a Comment