বর্ষবরণে নারী লাঞ্ছনাকারীদের গ্রেফতারের দাবি


গত বছর বর্ষবরণে নারী লাঞ্ছনাকারীদের অবিলম্বে গ্রেফতার ও শাস্তির দাবিতে বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ করেছে সমাজতান্ত্রিক ছাত্র ফ্রন্ট ও বাংলাদেশে নারীমুক্তি কেন্দ্র। বুধবার দুপুরে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে যৌথভাবে এ বিক্ষোভ কর্মসূচি পালন করে সংগঠন দু’টি।

সমাবেশে বক্তারা বলেন, গত বছর পহেলা বৈশাখে প্রকাশ্য ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের টিএসসিতে নারীরা লাঞ্ছনার শিকার হয়। সেই বর্বর ঘটনার এক বছর হতে চলল। অথচ এই এক বছরেও দোষীদের শাস্তির আওতায় আনতে পারেনি পুলিশ। প্রাথমিকভাবে নিপীড়নকারীদের ছবি প্রকাশ করে ধরিয়ে দিতে পুলিশের পক্ষ থেকে এক লাখ টাকা পুরস্কারও ঘোষণা করা হয়। কিন্তু পুলিশ এখন তদন্ত রিপোর্ট দিয়েছে পহেলা বৈশাখে নাকি লাঞ্ছনার ঘটনাই ঘটেনি! তাই তারাও নিপীড়নকারীদের খুঁজে পায়নি।

তারা বলেন, তদন্তের নামে পুলিশের এই প্রহসনের কারণে, একের পর এক ঘটনার বিচারহীনতায় নিপীড়নকারীরা প্রশ্রয় পাচ্ছে, ফলে ধর্ষণ,নির্যাতন, খুন অব্যাহতভাবে বেড়েই চলছে। তনু ধর্ষণ-হত্যা এই বিচারহীনতারই পরিণতি।

বক্তারা আরো বলেন, যেখানে রাষ্ট্রের দায়িত্ব ছিল লাঞ্ছনাকারীদের খুঁজে বের করে বিচার করা, তা না করে এবার পহেলা বৈশাখে নিরাপত্তার নামে সার্বজনীন এই উৎসবকে সংকোচিত করা হচ্ছে। বিকাল ৫টার পর প্রবেশাধিকার বন্ধ করে চিন্তার ক্ষেত্র প্রসারিত করছে। সাথে সাথে বিকেল ৫ টার পর প্রবেশাধিকার নিষিদ্ধ করায় এটাই প্রতীয়মান হয়, জনগণের নিরাপত্তা দিতে তারা পারবে না। আমরা এ নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার করে মানুষকে মুক্ত স্বাধীনভাবে বর্ষবরণ উদযাপনের পরিবেশ তৈরির পাশাপাশি গত বছর নারী লাঞ্ছনাকারীদের গ্রেফতার ও দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানাই।

নারীমুক্তি কেন্দ্রের সভাপতি সীমা দত্তের সভাপতিত্বে সমাবেশে বক্তব্য রাখেন সমাজতান্ত্রিক ছাত্র ফ্রন্টের সভাপতি নাঈমা খালেদ মনিকা, নারীমুক্তি কেন্দ্রের সাধারণ সম্পাদক মর্জিনা খাতুন, সমাজতান্ত্রিক ছাত্র ফ্রন্ট কেন্দ্রীয় কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক মাসুদ রানা। সমাবেশ পরিচালনা করেন সমাজতান্ত্রিক ছাত্র ফ্রন্ট ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শাখার সভাপতি ইভা মজুমদার।  

Source : jagonews24

Post a Comment