দেশে আইসিটি খাতে অবকাঠামো নির্মাণে কাজ করবে কোরিয়া


দেশে প্রত্যন্ত অঞ্চলে মোবাইল নেটওয়ার্কিং, সোলার এনার্জি, কনস্ট্রাকশান অ্যান্ড ইনফ্রাস্ট্রাকচার সহ ওয়েস্ট ম্যানেজমেন্ট সেক্টরে দক্ষিণ কোরিয়ার অ্যাডভান্সড টেকনোলজিকে বাংলাদেশে কাজে লাগাতে দ্বিপাক্ষিক কর্মসূচীর আওতায় বিভিন্ন প্রজেক্ট হাতে নেয়া হচ্ছে বলে জানিয়েছেন সিউলে দায়িত্বরত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত জুলফিকার রহমান। 

৮ এপ্রিল শুক্রবার এই প্রতিবেদকের সাথে আলাপকালে তিনি এসব কথা বলেন। 

জুলফিকার রহমান জানান, ঢাকা সিটি নর্থের মেয়র আনিসুল হকের নেতৃত্বে একটি প্রতিনিধি দল বর্তমানে সিউল সফরে রয়েছেন। এই প্রতিনিধি দল কোরিয়ার সিটি গভর্নমেন্টগুলোর পরিচালনা কার্যক্রম পর্যবেক্ষণ করছেন। বিশেষ করে করে বর্জ্য ব্যবস্থাপনা এবং ট্রাফিক কন্ট্রোল নিয়ে তাদের আগ্রহ রয়েছে। প্রতিনিধি দল এসব উন্নত পদ্ধতি ঢাকা শহরেও বাস্তবায়ন করতে চান। 

তিনি জানান কনস্ট্রাকশান অ্যান্ড ইনফ্রাস্ট্রাকচার সেক্টরে কোরিয়ান প্রযুক্তিকে কাজে লাগাবার মিশনে বাংলাদেশে সরকারের সেতু বিভাগের সচিবও এখন সিউলে অবস্থান করছেন। 

বিশেষ ওরিয়েন্টেশন প্রোগ্রামে আগামী সপ্তাহে কোরিয়া আসছেন বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মন্ত্রী স্থপতি ইয়াফেস ওসমান। 

রাষ্ট্রদূত জানান, তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনায়েদ আহমেদ পলকের নেতৃত্বে ৩০ সদস্যের একটি আইসিটি ডেলিগেশন কোরিয়া সফর করবে মে মাসের মাঝামাঝি। যারা আগামীতে হাইটেক পার্কে কাজ করবেন। 

বাংলাদেশের আইসিটি সেক্টরের উদ্যোক্তা এবং ব্যবসায়ীদের সমন্বয়ে গঠিত এই প্রতিনিধিদলটি কোরিয়ানদের সাথে বি-টু-বি তথা বিজনেসম্যান টু বিজনেসম্যান আলোচনা ও সেমিনারে অংশ নেবে।

জুলফিকার রহমান বলেন, ‘আমাদের দেশে সন্দীপ-হাতিয়া যেখানে মোবাইল নেটওয়ার্ক নেই বা পৌঁছতে পারে না, সেখানে কীভাবে নেটওয়ার্ক কানেকশান দেয়া যায়, তার জন্য কোরিয়ানদের প্রযুক্তিগুলো দেখবেন আমাদের আইসিটি এক্সপার্টরা। ‘গিগা আইল্যান্ড’ নামে কোরিয়াতে একটা প্রজেক্ট আছে, যারা দুর্গম এরিয়াতে কানেক্টিভিটি বাড়াতে কাজ করে থাকে।’ 
সূত্র :বাংলামেইল২৪

Post a Comment