বঙ্গবন্ধুর পৈত্রিক বাড়ির আগের অবয়ব ফেরানোর প্রস্তাব


গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়ায় বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের পৈত্রিক বাড়ির পুরনো ঐতিহ্য ফিরিয়ে আনা হবে। আগের অবয়বে ফিরিয়ে আনতে সংরক্ষণের প্রস্তাব দিয়েছে সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয়।

সোমবার সচিবালয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে মন্ত্রিসভার বৈঠকে মন্ত্রণালয়ের পক্ষে স্থপতি সাঈদ এম আহমেদ এই প্রস্তাব উপস্থাপন করেন। পরে সংস্কৃতিমন্ত্রী আসাদুজ্জামান নূর সাংবাদিকদের বলেন, প্রায় দেড়শ বছরের পুরোনো এই বাড়িতে নানা সময়ে নানা পরিবর্তন আনা হয়েছে। বঙ্গবন্ধুর সময়েও সংস্কার হয়েছে।

তিনি বলেন, ‘বাড়িটি আমাদের ঐতিহ্যের অংশ। পাঁচ-ছয় বছর আগে প্রধানমন্ত্রীকে না জানিয়েছেই সেখানে কিছু রিনোভেশন করা হয়। তখন রিস্টোরেশনের পদ্ধতি অনুসরণ করা হয়নি। যেমন: যেখানে চুন-সুরকি ছিল, সেখানে প্লাস্টার করে দেয়া হয়েছে, রঙ করে দিয়েছে। এ ধরনের পুরনো বাড়ি সংরক্ষণের ক্ষেত্রে মূল বৈশিষ্ট্য বজায় রেখে তা মজবুত করতে হবে।’

১৯২০ সালের ১৭ মার্চ গোপালগঞ্জ জেলা সদর থেকে ১৯ কিলোমিটার দূরে টুঙ্গীপাড়ায় জন্মগ্রহণ করেন শেখ মুজিবুর রহমান। কালক্রমে তার হাত ধরেই বিশ্ব মানচিত্রে নতুন দেশ হিসেবে স্থান করে নেয় বাংলাদেশ।

১৯৭৫ সালের ১৫ অগাস্ট এক দল সেনা কর্মকর্তার হাতে ঢাকার ধানমন্ডির বাসভবনে সপরিবারে নিহত হন বঙ্গবন্ধু। তাকে সমাহিত করা হয় টুঙ্গীপাড়ায়, মা-বাবার পাশে।

১৯৯৬ সালে আওয়ামী লীগ সরকার ক্ষমতায় আসার পর টুঙ্গীপাড়ায় বঙ্গবন্ধু সমাধিসৌধ কমপ্লেক্স নির্মাণের পরিকল্পনা নেয়া হয়। ২০০১ সালের ১০ জানুয়ারি তৎকালীন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সমাধিসৌধের উদ্বোধন করেন।

আসাদুজ্জামান নূর বলেন, বঙ্গবন্ধুর সময় পর্যন্ত ওই বাড়ি বিভিন্ন সময়ে বিভিন্ন রূপে ছিল। সব দিক খেয়াল রেখে তিনটি বিকল্প রাখা হয়েছে মন্ত্রিসভায় তোলা প্রস্তাবে। সাঈদ আহমেদের প্রেজেন্টেশন ছাড়াও আমরা বিস্তারিত প্রস্তাব প্রধানমন্ত্রীকে দিয়েছি। উনি বিষয়টি দেখবেন, সিদ্ধান্ত দেবেন। তিনি পরিবারের সঙ্গে এ নিয়ে কথা বলে জানাবেন।

এদিকে মন্ত্রিসভার বৈঠকে কেরানীগঞ্জে নতুন কেন্দ্রীয় কারাগারের বর্তমান কেন্দ্রীয় কারাগারের সব স্থানান্তর হয়ে গেলে প্রধানমন্ত্রী নাজিমউদ্দিন রোডের পুরনো কারাগার ভবন দেখতে যেতে যাবেন বলে সিদ্ধান্ত হয়।

কারাগারে বঙ্গবন্ধু ও চার নেতার স্মৃতিবিজড়িত স্থান বাদ দিয়ে বাকি জায়গা জনগণের ব্যবহারের জন্য দিতে চান তিনি। তিনি এটাকে সবুজ রাখতে চান। তবে বাণিজ্যিক উদ্দেশ্যে এর কোনো ব্যবহার করা হবে না।
সূত্র : জাগোনিউজ২৪

Post a Comment