বাজারে গোসলের পানি জারে ভরে ‘মিনারেল ওয়াটার’


বাজারে দোকান মালিক-শ্রমিকদের গোসল ও ধোয়া-মোছার পানি সরবরাহের কথা বলে কর্তৃপক্ষের অনুমতিতে পাম্প বসিয়ে সেখান থেকেই পানি জারে ভরে ‘বিশুদ্ধ পানি’ হিসেবে বিক্রি করা হচ্ছিল চট্টগ্রামে।

বুধবার নগরীর রিয়াজউদ্দিন বাজারের কাঁচাবাজারে অভিযানে গিয়ে এই প্রতারণার খোঁজ পায় ভ্রাম্যমাণ আদালত।

অভিযানের নেতৃত্ব দেওয়া চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট তাহমিলুর রহমান বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের (সিসিসি) অনুমতি নিয়ে কাঁচাবাজারের মাংসের দোকানের কাছে দোকানকর্মীদের জন্য স্নানাগার খুলেছিলেন মো. জহির নামে একজন। এজন্য চট্টগ্রাম ওয়াসার অনুমতি নিয়ে একটি পাম্প বসান তিনি।

সেই পাম্প থেকে পানি তুলে একটি রিজার্ভারে রাখা হয়, সেই পানি গোসলের জন্য হলেও তা দিয়ে ‘বিশুদ্ধ পানি’র ব্যবসা করে আসছিলেন জহির। ‘নাফ মিনারেল ওয়াটার’ নাম দিয়ে এই পানি নগরীতে বিক্রি করা হচ্ছিল।

“অত্যন্ত নোংরা পরিবেশে জারগুলোতে অস্বাস্থ্যকর পানি ভর্তি করা হচ্ছিল।”

ম্যাজিস্ট্রেট তাহমিলুর বলেন, ‍“সেখানে সামনের অংশে কাঁচাবাজারের ব্যবসায়ী ও কর্মচারীরা গোসল করলেও ভেতরে সেই একই পানি জারে ভর্তি করে বাসাবাড়ি ও রেস্টুরেন্টে সরবরাহ করা হত।

“রিয়াজউদ্দিন বাজারের অলিগলিতে নাফ মিনারেল ওয়াটারের বিজ্ঞাপন ঝুলিয়ে কম দামে পানি সরবরাহ করে আসছিল জহির। প্রতি জার ১৮ টাকা বিক্রি করা হলেও কোনো ভবনের প্রথম তলায় সেটা ২০ টাকা, দ্বিতীয় তলায় ২৪ টাকা করে সরবরাহ করতেন তিনি।”

ভ্রাম্যমাণ আদালতের উপস্থিতি টের পেয়ে জহির পালিয়ে গেলেও উপস্থিত ব্যবসায়ী নেতারা তাকে ধরিয়ে দেওয়ার আশ্বাস দেন বলে জানান ম্যাজিস্ট্রেট তাহমিলুর।

ভ্রাম্যমাণ আদালতের আরেকটি অভিযানে আয়োডিনবিহীন লবণ বিক্রি করার অপরাধে চাক্তাই এলাকার শুকরিয়া সল্ট ফ্যাক্টরিকে ১০ হাজার টাকা জরিমানা করে ভ্রাম্যমাণ আদালত।

সূত্র: বিডিনিউজ২৪



Post a Comment