Sponsored Ad

গুলশানের রেস্টুরেন্টে বিদেশিরা জিম্মি, গোলাগুলি চলছে, ৪ পুলিশ অফিসার নিহত



রাজধানীর গুলশানে একটি রেস্টুরেন্টে হামলা চালিয়েছে কয়েকজন বন্দুকধারী। প্রথমে বোমা বিস্ফোরণ ঘটিয়ে আতঙ্ক সৃষ্টি করে এবং পরে গুলি ছোড়ে। এসময় পুলিশও তাদের লক্ষ্য করে গুলি ছোড়ে। তবে গুলি একতরফা হয়েছে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

শুক্রবার রাত সাড়ে ৯টার দিকে ঘটনার সূত্রপাত হয়। ধারণা করা হচ্ছে, ওই রেস্টুরেন্টে বেশ কয়েকজনকে জিম্মি করা হয়েছে। সেখানে কয়েকজন বিদেশি নাগরিক আছেন বলে জানা যাচ্ছে। পুলিশ পুরো এলাকা ঘিরে রেখেছে।

গুলশান জোনের পুলিশের ডিসি মোস্তাক আহমেদ বলেন, গুলশান ২ এর ৭৯ নম্বর রোডের হলি আর্টিসান বেকারি নামের একটি রেস্টুরেন্টের ভেতর থেকে পুলিশকে লক্ষ্য করে গুলি ছুড়ছে সন্ত্রাসীরা। সন্ত্রাসীদের গুলিতে দুই পুলিশ ও একজন পথচারী বিদ্ধ হন। তাদের উদ্ধার করে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। এর মধ্যে একজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক।

এদিকে, পুলিশের উপস্থিতি বৃদ্ধি পাওয়ায় সন্ত্রাসীদের কয়েকজন পাশে একটি ক্লিনিকে আশ্রয় নিয়েছে। পুলিশ রেস্টুরেন্ট ও ক্লিনিকটি ঘিরে রেখেছে। ঘটনাস্থলের আশপাশের রাস্তায় যান চলাচল বন্ধ আছে।
প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছেন, আট থেকে নয় জন বন্দুকধারী ওই রেস্টুরেন্টে হামলা চালায়। এরা সবাই তরুণ বয়সী। থেমে থেমে গুলি চলছে এখনো।

ঘটনাস্থলে পুলিশ, র‌্যাব, সোয়াত  গোয়েন্দা বাহিনির লোকজন অবস্থান করছেন।
ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে ভর্তি পুলিশের কনস্টেবল আলমগীর (২৬) বাম পায়ের হাঁটুর নিচে গুলিবিদ্ধ, কনস্টেবল প্রদীপ (২৮) গালে ও ডান পায়ে এবং মাইক্রোবাস চালক আব্দুর রাজ্জাক রানা (৩০) গলায় গুলিবিদ্ধ হয়েছেন। 

আহতদের হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া পুলিশ কনস্টেবল আল আমীন জানান, রাতে গুলাশানের ইউনাইডেট হাসপাতালের পাশে আব্দুর রাজ্জাক রানা গুলিবিদ্ধ অবস্থায় পড়ে থাকার খবর পেয়ে তাকে উদ্ধার করতে গেলে সন্ত্রাসীরা পুলিশকে লক্ষ্য করে গুলি ছোড়ে। রাজ্জাকের অবস্থা আশঙ্কাজনক।


উল্লেখ্য, রাজধানীর উত্তরার দিয়াবাড়ী এলাকায় বৌদ্ধমন্দিরের পাশ দিয়ে প্রবাহিত খাল থেকে ৯৭টি সেভেন পয়েন্ট সিক্সটু পিস্তল পাওয়া গেছে। এর মধ্যে ৯৫টি চীনে তৈরি, এবং দুটি দেশি। এছাড়া ২৬৩টি এসএমজির ম্যাগাজিন ও এক হাজারের বেশি কার্তুজও পাওয়া গেছে।

সূত্রঃ জাগোনিউজ২৪

Post a Comment