এসএসডি লাগিয়ে নিন, নতুন হয়ে যাবে কম্পিউটার


আপনার উইন্ডোজ ১০ কম্পিউটারটি কি বুট আপ হতে অনেক সময় লাগে? সম্ভবত পিসিটা সাধারণ হার্ড ড্রাইভে চলছে। হতেও পারে কম্পিউটারটি পুরনো ধাঁচের। বিশেষজ্ঞরা জানান, সলিড স্টেট ড্রাইভ (এসএসডি) হার্ড ড্রাইভের মাধ্যমে কম্পিউটারের গতি বেশ বৃদ্ধি পায়। এমনকি এসএসডি ড্রাইভে চলা ৫ বছরের পুরনো কম্পিউটারের গতিও অনেক বেড়ে যায়।

একটি মানসম্পন্ন এসএসডি দেখতে ল্যাপটপের ২.৫ ইঞ্চি হার্ড ড্রাইভের মতোই। কিন্তু এটা অনেক বেশি গতিসম্পন্ন। কম্পিউটারের এসএসডি ড্রাইভটি বদলে নিতে পারেন সহজে। এ ক্ষেত্রে উইন্ডোজ ৭, ৮ কিংবা ১০ লাগবে।

এসএসডি ড্রাইভ লাগিয়ে নেওয়ার প্রক্রিয়ার মাধ্যমে আসলে বর্তমান হার্ড ড্রাইভের যাবতীয় তথ্যকে এসএসডিতে ক্লোনিং করা হয়। সরাসরি বর্তমান হার্ড ড্রাইভটি খুলে নিয়ে এসএসডি লাগিয়ে নেওয়া যায়। এ কাজটি ডেস্কটপের ক্ষেত্রে খুব সহজ। এ কাজটি করার উপায় শিখে নিন।

প্রস্তুতি নিন : প্রথমেই একটি এসএসডি লাগবে। সব এসএসডি সমানভাবে তৈর হয় না। অন্যান্য যেকোনো ড্রাইভের চেয়ে এসএসডি অনেক বেশি গতিসম্পন্ন। তবে নতুন যে এসএসডি নেবেন তার স্টোরেজ ক্যাপাসিটি যেন বেশি হয় তা নিশ্চিত করুন। যদি আপনার বর্তমান হার্ড ড্রাইভটি ১ টেরাবাইট হয় এবং এর মাত্র ২০০ জিবি ব্যবহার করে থাকেন, তবে ২৪০ জিবি এসএসডি হলেই চলবে। ক্লোনিং সফটওয়্যারের দিকেও দৃষ্টি রাখতে হবে। বাজারে যেগুলো পাওয়া যায় তার সবগুলোই বেশ ভালো কাজ করে। এ কাজে আরো লাগবে ইউএসবি টু সাটা অ্যাডাপটার। আর লাগবে একটি স্ক্রু ড্রাইভার।

বাড়তি প্রস্তুতি : দুই ধরনের ড্রাইভ ফরমেট রয়েছে। একটি মামস্টার বুট রেকর্ড (এমবিআর) যা উইন্ডোজ ৭-এ ব্যবহার করা হয়। আরেকটি হলো জিইউআইডি প্যাট্রিশন টেবিল (ডিপিটি)। এটি উইন্ডোজ ৮ এবং তার পরের সংস্করণগুলোতে ব্যবহৃত হয়। কাজটি যেভাবে করবেন-

১. কমান্ড প্রম্পট চালু করুন।
২. এই উইন্ডোতে diskpart লিখে এন্টার চাপুন।
৩. ডিস্কপার্ট প্রম্পট-এ list disk লিখে এন্টার চাপুন।


এরপর বর্তমানে ইনস্টল হয়ে থাকা ড্রাইভের একটি তালিকা পাবেন। যদি কোনো ড্রাইভ জিপিটি'র অধীকে তারকা চিহ্নের (*) মাধ্যমে তালিকবদ্ধ হয়ে থাকে তবে বুঝে নিন, তা জিপিটি ব্যবহার করছে। নয়তো এটা একটা এমবিআর ড্রাইভ।

এ ছাড়া এসএসডি'র যে একই ড্রাইভ ফরম্যাট টাইপ রয়েছে তার নিশ্চিত হতে যা করবেন-

১. কমান্ড প্রম্পট চালু করুন।
২. ওই উইন্ডোতে diskmgmt লিখে এন্টার চাপুন। এতে ডিস্ক ম্যানেজমেন্ট খুলে যাবে।
৩. সেখানে এসএসডি খুঁজে বের করুন যাকে 'ডিস্ক ১' হিসাবে দেখানো হবে। অথবা ডিস্ক ২ হিসাবেও দেখানো হতে পারে। এসএসডি'তে মাউসের ডান পাশের বাটন ক্লিক করে 'চুজ টু জিপিটি (যদি তা এখন এমবিআর ব্যবহার করে থাকে)' বেছে নিন। কিংবা 'কনভার্ট টু এমবিআর' সিলেক্ট করুন।


ক্লোনিং করুন : এবার আসল কাজ করতে হবে। এসএসডি কোনো ইউএসবি পোর্টে সংযোগ করুন। এটাকে ইউএসবি টু সাটা ক্যাবল দিয়ে সংযোগ দেবেন। এরপর-

১. ম্যাকরিয়াম রিফ্লেক্ট ফ্রি ডাউনলোড করে ইনস্টল করুন।
২. ডাউনলোড হওয়ার পর ডেস্কটপে আসা আইকনে ডাবল ক্লিক করুন।
৩. এবার 'ক্লোন দিস ডিস্ক...'-এ ক্লিক করুন। এতে ক্লোন উইন্ডো খুলে যাবে।
৪. ক্লোন উইন্ডোতে 'সিলেক্ট এ ডিস্ক টু...' অংশ থেকে এসএসডি বেছে নিন।
৫. এবার 'নেক্সট' ক্লিক করে ক্লোনিং প্রক্রিয়ার বাকি নির্দেশনা ফলো করুন।


হার্ড ড্রাইভের স্থানে এসএসডি : শেষ ধাপে বর্তমান হার্ড ড্রাইভটাকে সরিয়ে নিতে হবে। ডেস্কটপে কাজটি সহজ। সেখানে ৩.৫ ইঞ্চি ড্রাইভটি সহজে খুঁজে পাওয়া যায়। একে খুলে নেওয়ার কাজটি ইন্টারনেট থেকে শিখে নিতে পারেন। অনেক এসএসডি ৩.৫ ইঞ্চির হার্ড ড্রাইভ নিয়ে আসে যাতে করে কম্পিউটারে অনায়াসে বসে যেতে পারে। কিংবা এসএসডি পিসির মধ্যে ঝুলিয়ে রাখতে পারেন। একবার পুরনো ড্রাইভটা খুলে নিন। আর একইভাবে এসএসডি লাগিয়ে নিন। একবার এসএসডি ইনস্টল হয়ে গেলে গোটা ড্রাইভের পুরো ব্যাকআপ রেখে দিন। ইউএসবি টু সাটা অ্যাডাপটারকে চলমান ব্যাকআপ ড্রাইভ হিসাবে কাজে লাগাতে পারেন।


সব কাজ শেষে কম্পিউটারটি একবার রিস্টার্ট করুন। কয়েকবার করতে হতে পারে। কম্পিউটার নতুন ড্রাইভের সঙ্গে মানিয়ে নিতে কয়েকবার রিস্টার্ট করতে হতে পারে। 

সূত্র : সি নেট/কালেরকন্ঠ

Post a Comment