ভূমিকম্পে আতঙ্কে ভবন ছেড়ে রাস্তায় মানুষ



আবারও ভূমিকম্পে কেঁপে উঠল গোটা দেশ। বুধবার বিকলে ৪টা ৩৪ মিনিটে হঠাৎ রাজধানীসহ সারাদেশে তীব্র ভূমিকম্প অনুভূত হয়। অফিস ছুটির আগ মুহূর্তে ঢাকা, চট্টগ্রামসহ সারা দেশের মানুষ আবারো আতঙ্কিত হলো। মার্কিন ভূতাত্ত্বিক জরিপ সংস্থার মতে, রিখটার স্কেলে ভূমিকম্পের মাত্রা ছিল ৬ দশমিক ৮। এই ভূমিকম্পের উৎপত্তিস্থল ছিল ঢাকা থেকে ৫৩৫ কিলোমিটার দক্ষিণ-পূর্বে মিয়ানমারের চাউক অঞ্চলে; কেন্দ্র ছিল ভূপৃষ্ঠের ৮৪ কিলোমিটার গভীরে।

ভূমিকম্পে বড় ধরনের কোনো ক্ষয়ক্ষতি হয়নি। প্রাণহানির খবর পাওয়া যায়নি। আতঙ্কে বাসাবাড়ি ও অফিস যে যেখানে ছিলেন সবাই আতঙ্কে ভবন ছেড়ে রাস্তা ও খোলা জায়গায় বের হয়ে আসেন। এ সময় সবার চোখেমুখে ছিল আতঙ্কের ছাপ। 

অনেককেই সুউচ্চ ভবন থেকে সিঁড়ি বেয়ে দৌড়ে নিচে নামার সময় অনেকেই আতঙ্কে হইহুল্লোড়, চিৎকার-চেচামেচি। যে যেভাবে পারছে আত্মরক্ষায় ছুটছে। প্রতিটি ভবনের নিচে মানুষের ভিড়। কেউ কেউ ফোনে স্বজনদের খোঁজ-খবর নিচ্ছিলেন। ভূমিকম্পের সময় রাজধানীর বাড্ডা এলাকায় এমন দৃশ্য চোখে পড়ে। 

রাজধানীর উত্তর বাড্ডায় অতঙ্কিত অবস্থায় ভূমিকম্পের বর্ণনা দিচ্ছিলেন বেসরকারি চাকরিজীবী হাসিবুর রহমান। তিনি বলেন,‘অফিসে কাজ করছিলাম। হঠাৎ দেখি সহকর্মীরা ভূমিকম্প বলে চিৎকার করছে। তখনই ভূমিকম্প টের পেয়ে নিচে নেমে আসি। 

ভবনটির নিরাপত্তাকর্মী হায়দার হোসেন বলেন, প্রথমে ভূমিকম্প বুঝতে পারেনি। সবাই দৌঁড়ে নিচে আসতে দেখে বুঝতে পারি বিল্ডিং কাঁপছে। পরে আমিও তাদের সঙ্গে দৌড়ে রাস্তায় চলে আসি। 

উল্লেখ্য, বুধবার ভোরে ইতালিতে ৬ দশমিক ২ মাত্রার ভূমিকম্পে সর্বশেষ ৩৭ জনের মৃত্যু হয়েছে বলে খবর পাওয়া গেছে। এছাড়া গতকাল মঙ্গলবার সকাল ৮টা ১৫ মিনিটের দিকেও সারাদেশে মৃদু কম্পন অনুভূত হয়।


-জাগোনিউজ২৪

Post a Comment