মুশফিককে নায়ক হওয়ার প্রস্তাব হিরো আলমের


আশরাফুল আলম থেকে মানুষের কাছে পরিচিত হতে লাগলেন ‘ডিশ আলম’নামে। সিডি বিক্রেতা থেকে ক্যাবল নেটওয়ার্ক ব্যবসা। এর পরের গল্পটা অনেকেরই জানা। মিউজিক ভিডিওতে আলম নিজেই মডেল হন। চিত্রনাট্য, গান নির্বাচন, নায়িকা নির্বাচন-সব একাই করেন।

ফেসবুক, ইউটিউবসহ বিভিন্ন মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়েছে আলমের অসংখ্য ভিডিও। এবার তার নির্মিত মিউজিক ভিডিওতে মডেল হিসেবে সুযোগ দিতে চান বাংলাদেশ দলের টেস্ট অধিনায়ক মুশফিকুর রহিমকে। মঙ্গলবার মিরপুর শেরেবাংলা স্টেডিয়ামে এসে এমন ইচ্ছার কথা মুশফিককে জানিয়ে গেলেন হিরো আলম। মুশফিক অবশ্য আলমকে বলেছেন, ‘আপনিই তো হিরো, চাইলে আমি ছবিতে ভিলেনের চরিত্রে কাজ করতে পারি।’ একই জেলায়। মঙ্গলবার শুধু মুশফিক নয়, জাতীয় দলের বেশ কয়েকজন ক্রিকেটারের সঙ্গে দেখা করেছেন হিরো আলম। তাসকিন আহমেদ, শাহরিয়ার নাফীস, নাসির হোসেন, এনামুল হক বিজয়, আল-আমিন হোসেন, নুরুল হাসান সোহানদের সঙ্গে কথা বলেছেন, ছবি তুলেছেন আলম। জাতীয় দলের ক্রিকেটারদের অনেকেই ইউটিউবে হিরো আলমের মিউজিক ভিডিও দেখেছেন। হিরো আলমকে এভাবেই আরো সামনে এগিয়ে যাওয়ার উৎসাহ দিয়েছেন তারা।

ছোটবেলায় অভাবে আলমের পরিবার তাকে আরেক পরিবারের হাতে তুলে দেয়। আলম চলে আসেন একই গ্রামের আব্দুর রাজ্জাকের বাসায়। আব্দুর রাজ্জাক তাকে ছেলের মতো করেই স্নেহ দিয়ে বড় করেন। আলমের পালক পিতা আব্দুর রাজ্জাকের সংসারেও নেমে আসে অভাব। ১৩-১৪ বছর বয়সেই আলমকে নেমে পড়তে হয় জীবিকা নির্বাহের তাগিদে। সিডি বিক্রি থেকে আলম ডিশ ব্যবসায় হাত দিয়ে সফলতার মুখ দেখেন। এখন তার মাসে আয় ৭০-৮০ হাজার টাকা। স্ত্রী ও দুই সন্তান নিয়ে সুখেই আছেন আলম। নিজের স্বপ্নগুলো একে একে পূরণ করেই চলেছেন তিনি।


মঙ্গলবার মিরপুর শের-ই-বাংলা স্টেডিয়ামে অনুশীলন করে বাংলাদেশ ক্রিকেট দল। তাদের অনুশীলন দেখতে আসেন হিরো আলম। অনুশীলন শেষে মুশফিকের দেখা পান আলম। এ সময় তিনি টেস্ট অধিনায়ককে তার মুভিতে নায়ক হবার প্রস্তাব দেন। মুশফিক তার প্রস্তাব ফিরিয়ে দেন। তবে শর্ত দেন যদি ভিলেন হিসেবে নেয়া হয়, তাহলে তিনি অভিনয় করতে রাজি আছেন বলে জানান।

-শেয়ারবাজারবিডি

Post a Comment