পবিত্র নগরী মক্কার দর্শনীয় স্থানসমূহ



আল্লাহ তাআলা মুসলমানদের জন্য পবিত্র নগরী মক্কার যিয়ারাতকে ইবাদাত হিসেবে নির্ধারণ করেছেন। তাইতো প্রত্যেক বছর শারীরিক ও আর্থিকভাবে সামর্থ্যবান মুসলমানগণ আল্লাহ হুকুমে সাড়া দিতে সমগ্র বিশ্ব থেকে পবিত্র নগরী মক্কায় উপস্থিত হয়। হজ ও ওমরা পালনের মাধ্যমে তারা আল্লাহ নৈকট্য অর্জন করে থাকে।

মুসলিম উম্মাহ হজের কার্যক্রম সম্পন্ন করার পাশাপাশি পবিত্র মক্কা নগরীতে অবস্থিত ইসলাম ও মুসলমানদের ঐতিহ্য ও ঐতিহাসিক স্মৃতি বিজড়িত অসংখ্য স্থাপনা দেখে আসতে পারেন। যা পরিদর্শনেও তাঁদের হৃদয়ে তাকওয়া ও ইবাদাতের একান্ত আগ্রহ তৈরি হয়ে থাকে।

পবিত্র নগরী মক্কায় অবস্থিত দর্শনীয় স্থানগুলো হলো-
>> মসজিদে হারাম তথা কাবা শরিফ;
>> ঐতিহাসিক সাফা ও মারওয়া পাহাড়;
>> পবিত্র নগরী মক্কার ঐতিহ্যবাহী লাইব্রেরি;
>> পবিত্র নগরী মক্কার জাদুঘর;
>> ‘কিসওয়া’ কাবার গিলাফ তৈরির কারখানা;
>> জাবাল-ই-রহমত, যা আরাফাতের ময়দানের পাশেই অবস্থিত;
>> জাবাল-ই-নূর, যেখানে বিশ্বনবি ধ্যান মগ্ন থাকতেন এবং সর্ব প্রথম কুরআন নাজিল হয়;
>> ঐতিহাসিক আরাফাতের ময়দান;
>> আরাফাত ময়দানের সন্নিকটবর্তী মসজিদে নামিরাহ;
>> মিনার মসজিদ আল-খায়েফ;
>> মুযদালিফা;
>> জাবাল-ই-সাওর, হিজরতের সময় বিশ্বনবি যেখানে অবস্থান করেছিলেন;
>> জান্নাতুল মুআল্লা, বাইতুল্লাহর পূর্ব দিকে পবিত্র নগরী মক্কার বিখ্যাত কবরস্থান;
>> জমজম কূপ, দুনিয়াতে আল্লাহ তাআলার যত অনুপম নির্দশন রয়েছে, তার মধ্যে পবিত্র নগরী মক্কায় অবস্থিত ‌জমজম কূপ` অন্যতম।

আল্লাহ তাআলা হজে গমনকারী মুসলিম উম্মাহকে পবিত্র নগরী মক্কার ঐতিহাসিক ও ঐতিহ্যবাহী দর্শনীয় স্থানগুলো পরিদর্শন করে তাকওয়া অর্জনের তাওফিক দান করুন। আমিন।

-জাগোনিউজ২৪

Post a Comment