ইউরোপ সেরা হলেন রোনালদো



ইউরোপের বর্ষসেরা ফুটবলার নির্বাচিত হয়েছেন রিয়াল মাদ্রিদ তারকা ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো। বৃহস্পতিবার চ্যাম্পিয়ন্স লিগের ড্র অনুষ্ঠানের পর রোনালদোকে বিজয়ী ঘোষণা করে উয়েফা। লিওনেল মেসির পর দ্বিতীয় ফুটবলার হিসেবে দুইবার ইউরোপ সেরা হলেন রোনালদো।

পুরস্কার জয়ের প্রতিক্রিয়ায় রোনালদো বলেন, অবশ্যই আমি খুশি কারণ এটা ছিল অসাধারণ এক মৌসুম।

বর্ষসেরার লড়াইয়ে রোনালদোর প্রতিদ্বন্দ্বী ছিলেন তারই ক্লাব সতীর্থ গ্যারেথ বেল এবং অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদের ফরোয়ার্ড আন্তোনিও গ্রিজম্যান।

দুর্দান্ত একটি মৌসুম কাটিয়েছেন ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো। বিশেষ করে এই বছরের জানুয়ারির পর। জিনেদিন জিদান দায়িত্ব নেয়ার পরই বদলে যায় রিয়াল মাদ্রিদের চেহারা। রোনারদোও জ্বলে ওঠেন আপন শক্তিতে। এরপর রিয়াল মাদ্রিদ জিতলো চ্যাম্পিয়ন্স লিগের শিরোপা। রোনালদো হয়ে উঠলেন রিয়ালের মধ্যমনি।

এরপর ইউরো চ্যাম্পিয়নশিপ। ক্লাবের হয়ে যতটা উজ্জ্বল, দেশের হয়ে ততটা নিষ্প্রভ। রোনালদোর নামে এই অপবাদ বেশ প্রচলিত; কিন্তু পর্তুগালের আনকোরা একটি দল নিয়ে যে বাজিমাত করলেন সিআর সেভেন তা রীতিমত অবিশ্বাস্য। দেশকে প্রথমবারের মতো এনে দিলেন ইউরো চ্যাম্পিয়নশিপের শিরোপা।

আন্তোনিও গ্রিজম্যান তরুণ এক ফুটবল স্ট্রাইকার। ফ্রান্সের ২৫ বছর বয়সী এই স্ট্রাইকার ছিলেন গত মৌসুমে দুর্দান্ত। লা লিগায় করেছেন ২২ গোল। শেষ পর্যন্ত অ্যাটলেটিকোকে ধরে রেখেছিলেন শিরোপার দাবিদার হিসেবে। তার নৈপুণ্যেই অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদ উঠেছিল চ্যাম্পিয়ন্স লিগের ফাইনালে। এছাড়া তার একক নৈপুণ্যেই বলা যায় ইউরোর ফাইনালে উঠেছিল ফ্রান্স। যদিও দু’ক্ষেত্রেই তিনি হেরে গেছেন রোনালদোর কাছে। তবে, ইউরোয় তিনি জিতেছেন গোল্টেন বুট পুরস্কার।

বিশ্বের সবচেয়ে দামি ফুটবলার হিসেবে রিয়ালে যোগ দেয়ার পর থেকেই গ্যারেথ বেল দুর্দান্ত। দলকে যেন সামনে থেকে নেতৃত্ব দেন। যেমন গতি, তেমন স্কিল- সব মিলিয়ে তিনি দুর্বার। গত মৌসুমে রোনালদোর পাশাপাশি রিয়ালের সাফল্যে সমানভাবেই অবদান রেখেছেন। একই সঙ্গে প্রথমবারের মতো নিজের দেশ ওয়েলসকে ইউরোর চূড়ান্তপর্বে তুলে এনে উঠে গেছেন সেমিফাইনাল পর্যন্ত।

সেরা ১০ ফুটবলারের মধ্যে ভোটের হিসেবে চতুর্থ হয়েছেন লুইস সুয়ারেজ। লিওনেল মেসি পঞ্চম, জিয়ানলুইজি বাফন ষষ্ঠ, পেপে সপ্তম, ম্যানুয়েল নুয়্যার অষ্টম, টনি ক্রুস নবম এবং থমাস মুলার হয়েছেন দশম।

-জাগোনিউজ২৪

Post a Comment