সৌদি আরবের বাজারে নকল স্বর্ণের ছড়াছড়ি


সৌদি আরবের বাজারে নকল ও ভেজাল স্বর্ণের পরিমাণ মাত্রাতিরিক্ত হারে বাড়ছে বলে জানিয়েছেন দেশটির স্বর্ণ ব্যবসায়ীরা। দেশটির রাজধানী রিয়াদের বেশ কয়েকটি বাজারে কাঁচের উপর প্রলেপ দেওয়া নকল স্বর্ণ বিক্রি করা হচ্ছে বলে দাবি করেছেন তারা।

এ অবস্থায় স্বর্ণ ক্রয়ে আগ্রহী ব্যক্তিদের প্রতারিত না হতে স্বর্ণ কেনার সময় সতর্ক থাকার পরামর্শ দিয়েছেন রিয়াদের স্বর্ণ ব্যবসায়ীরা। অনুমোদিত স্বর্ণ বিক্রেতা ছাড়া অন্য কোনো ব্যক্তি বা প্রতিষ্ঠান থেকে স্বর্ণ না কেনার কথাও জানিয়েছেন তারা।

আজ শুক্রবার সৌদি আরবের জনপ্রিয় সংবাদ মাধ্যম আরব নিউজের এক প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে, গ্রীষ্মের সময় দেশটিতে স্বর্ণের বাজারে সাধারণত মন্দা দেখা দেয়। এতে প্রতি বছরের এ সময়ে চাহিদা কমে যাওয়ার কারণে স্বর্ণের দাম অনেক কমে যায়। গ্রীষ্মের পর এ সৌখিনপণ্যের চাহিদা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে এর দামও বেড়ে যায়। আর এর সুযোগ নেন স্থানীয় কিছু অসাধু ব্যবসায়ী। ক্রেতাদের ঠকাতে নকল ও ভেজাল স্বর্ণ বাজারে ছাড়ে তারা।

এখন সৌদি আরবের বাজারে প্রতি আউন্স স্বর্ণ বিক্রি হচ্ছে ১ হাজার ৩৪৫ ডলার বা প্রায় ১ লাখ ৬ হাজার টাকায়। কিছুদিনের মধ্যে এর দাম ১ হাজার ৪০০ ডলার বা প্রায় ১ লাখ ১০ হাজার টাকা পর্যন্ত উঠতে পারে।


গ্রীষ্মের পর স্বর্ণের দাম বাড়ার সুযোগ নিচ্ছে সৌদি আরবের অসাধু ব্যবসায়ীরা। নিম্নমানের স্বর্ণ ও কমদামী ধাতুর উপর স্বর্ণের প্রলেপ দিয়ে ক্রেতাদের প্রতারিত করছে তারা।


সৌদি আরবের স্বর্ণ ব্যবসায়ী সাইফ আল-আকাইলির বরাত দিয়ে আরব নিউজের প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে, বাজারে বর্তমান মূল্যের চেয়ে কম দামে নকল ও ভেজাল স্বর্ণ বিক্রি হচ্ছে। এতে একদিকে সৌদি স্বর্ণের বাজারের প্রতি সাধারণ ক্রেতাদের বিশ্বাস নষ্ট হচ্ছে। অন্যদিকে আমাদের স্বর্ণের বাজার আর্থিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে।

সৌদি আরবের রত্ন এবং মূল্যবান ধাতু ব্যবসায়ীদের জাতীয় কমিটির সাবেক উপ-প্রধান গাজী বিন তালিব বলেন, অনুমোদিত দোকানগুলোতে যে স্বর্ণ বিক্রি হয় তাতে উৎপাদিত প্রতিষ্ঠানের মনোগ্রাম ও স্ট্যাম্প থাকার কারণে তা নকল হওয়ার সম্ভাবনা নেই। কোনো অনুমোদিত দোকানে নকল স্বর্ণ বিক্রি হয় না। বাইরের অননুমোদিত দোকানগুলোতেই নিম্নমানের স্বর্ণ বিক্রি হচ্ছে।

ভেজাল ও নিম্ন মানের স্বর্ণ এড়াতে অনুমোদিত দোকান থেকেই এ শৌখিন পণ্য ও মূল্যবান ধাতু কেনার পরামর্শ দিয়েছেন তিনি।


-লেটেস্টবিডিনিউজ

Post a Comment