ঈদে যাত্রীদের যেসব সেবা দিচ্ছে রেল



আসন্ন ঈদ-উল- আজহা উপলক্ষে ট্রেনের অগ্রিম টিকিট বিক্রি আগামী ২৯ আগস্ট থেকে শুরু হবে। প্রতি বছর ঈদে বাড়ি ফেরার সময় ট্রেনের টিকিট কাটা থেকে শুরু করে অতিরিক্ত ভিড়, সিডিউল বিপর্যয়, ঘণ্টার পর ঘণ্টা অপেক্ষা এসবই ছিল ঘরেফেরা মানুষের কাছে চিরচেনা রূপ। তবে গত রমজানের ঈদে তেমন কোন ভোগান্তি পোহাতে হয়নি ট্রেন যাত্রীদের।

আসন্ন ঈদ-উল-আজহাতেও যাত্রীদের নির্বিঘ্নে যাতায়াতের লক্ষ্যে বাংলাদেশ রেলওয়ে বিভিন্ন পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে। এসব সেবার মধ্যে রয়েছে- 

স্পেশাল ট্রেন পরিচালনা : ঈদের পূর্বে ৩ দিন (৯-১১ সেপ্টেম্বর) এবং ঈদের পরবর্তী ৭দিন  (১৪-২০ সেপ্টেম্বর, চাঁদ দেখার উপর নির্ভরশীল) ৫ জোড়া ও  ঈদের দিন শোলাকিয়া স্পেশাল ২ জোড়াসহ মোট ৭ জোড়া ট্রেন চলাচল করবে।

আন্ত:নগর ট্রেনের অফ-ডে বাতিল : ৭ সেপ্টেম্বর থেকে ঈদের আগের দিন পর্যন্ত আন্তঃনগর ট্রেনসমূহের (৭১১ উপকূল এক্সপ্রেস, ৭৮৫ বিজয় এক্সপ্রেস ও ৭২৬ সুন্দরবন এক্সপ্রেস ছাড়া) অফ-ডে থাকবে না। তবে ঈদের পর হতে যথারীতি আন্তঃনগর ট্রেনসমূহের অফ-ডে বহাল থাকবে।

বিশেষ ব্যবস্থাপনায় টিকিট বিক্রি : ঢাকা ও চট্টগ্রাম স্টেশন থেকে ঈদ পূর্ব অগ্রিম টিকিট বিক্রি শুরু হবে  ২৯ আগস্ট থেকে। এদিন দেয়া হবে ৭ সেপ্টেম্বরের টিকিট। এরপর ৩০ আগস্ট থেকে ২ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত যথাক্রমে দেয়া হবে ৮, ৯, ১০ ও ১১ সেপ্টেম্বরের টিকিট।

এছাড়া ঈদ পরবর্তী সময়ে রাজশাহী, খুলনা, রংপুর, দিনাজপুর ও লালমনিরহাট স্টেশন হতে বিশেষ ব্যবস্থাপনায় ৫ থেকে ৯ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত অগ্রিম বিক্রি হবে যথাক্রমে ১৪, ১৫, ১৬, ১৭ এবং ১৮ সেপ্টেম্বরের টিকিট।

প্রতিদিন সকাল ৮ টা থেকে টিকিট বিক্রি শুরু হবে। একজন যাত্রী সর্বাধিক ৪টি টিকিট কিনতে পারবেন এবং বিক্রিত টিকিট ফেরত নেওয়া হবে না।

তবে ঈদে উপলক্ষে ১১ ও ১২ সেপ্টেম্বর ঢাকা- কলকাতা-ঢাকা পথে মৈত্রী ট্রেন চলাচল করবে না।

অতিরিক্ত কোচ সংযোজন : পবিত্র ঈদ-উল-আযহা উপলক্ষে ওয়ার্কশপ হতে অতিরিক্ত ১৪০টি কোচ শপ আউট-টার্ণসহ ১ হাজার ১৪৬ টি যাত্রীবাহী কোচ সরবরাহ করা হবে।

অতিরিক্ত ইঞ্জিন সরবরাহ : ঈদ উপলক্ষে কারখানায় মেরামত করে আরো ১৮টিসহ মোট ২২০টি ইঞ্জিন সরবরাহ করা হবে।

টিকিট কালোবাজারী প্রতিরোধ :  ঢাকা ক্যান্টনমেন্ট, বিমানবন্দর, জয়দেবপুর, চট্টগ্রাম, ময়মনসিংহ, সিলেট, রাজশাহী, খুলনাসহ সকল বড় বড় স্টেশনে জিআরপি, আরএনপি, স্থানীয় পুলিশ, র্যা ব ও বিজিবির সহযোগিতায় টিকিট কালোবাজারি প্রতিরোধে সার্বক্ষণিক প্রহরার ব্যবস্থা করা হবে। তাছাড়া জেলা প্রশাসকদের সহায়তায় ভ্রাম্যমান আদলত পরিচালনা করা হবে।

স্পেশাল ট্রেন

দেওয়ানগঞ্জ স্পেশাল : ঢাকা-দেওয়ানগঞ্জ-ঢাকা ০৯ থেকে ১১ সেপ্টেম্বর ও ১৪ থেকে ২০ সেপ্টেম্বর চলাচল করবে।

চাঁদপুর স্পেশাল ১ : চট্টগ্রাম- চাঁদপুর-চট্টগ্রাম একই তারিখে চলাচল করবে।

চাঁদপুর স্পেশাল ২ :  চট্টগ্রাম- চাঁদপুর-চট্টগ্রাম একই তারিখে চলাচল করবে।

পার্বতীপুর স্পেশাল : পার্বতীপুর-ঢাকা-পার্বতীপুর একই তারিখে চলাচল করবে।

খুলনা স্পেশাল : খুলনা-ঢাকা-খুলনা একই তারিখে চলাচল করবে।

শোলাকিয়া স্পেশল-১ : ভৈরব-কিশোরগঞ্জ-ভৈরব, শুধুমাত্র ঈদের দিন চলাচল করবে।

শোলাকিয়া স্পেশল-২ : ময়মনসিংহ-কিশোরগঞ্জ-ময়মনসিংহ, শুধুমাত্র ঈদের দিন চলাচল করবে।

-জাগোনিউজ২৪

Post a Comment