**TRY FREE HUMAN READABLE ARTICLE SPINNER/ARTICLE REWRITER**

অল্পের জন্য প্রাণে বাঁচলেন প্রশিক্ষণ বিমানের দুই পাইলট


অল্পের জন্য প্রাণে বাঁচলেন যুদ্ধ-বিমানের দুই পাইলট। বৃহস্পতিবার সকাল ১১টার দিকে খড়্গপুরের কলাইকুন্ডা বায়ু সেনাঘাঁটি থেকে রুটিন প্রশিক্ষণ হিসেবে ‘‌আই এ এফ হক’‌ যুদ্ধ বিমান নিয়ে টেক-‌অফ করছিলেন দুই বায়ুসেনা শিক্ষানবিশ পাইলট। সিগন্যাল পাওয়ার পরই রানওয়ে দিয়ে যুদ্ধ–বিমান ছুটতে শুরু করেছে। আকাশে ওঠার মুহূর্তে পাইলট বুঝতে পারেন যুদ্ধ–বিমানে বড়সড় যান্ত্রিক গোলযোগ দেখা দিয়েছে। সঙ্গে সঙ্গে দু’‌জন ঝাঁপ দেন। মুহূর্তের মধ্যে বিস্ফোরণে টুকরো টুকরো হয়ে যায় যুদ্ধ–বিমানটি। 

বিপদঘণ্টা বেজে ওঠে। ছুটে আসেন দেশের অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ বায়ুসেনা ঘাঁটির ক্যুইক রেসপন্স টিম। রানওয়ের পাশে দমকলের ৫টি ইঞ্জিন সব সময় থাকে। দুর্ঘটনাগ্রস্ত বিমানের জ্বলতে থাকা অংশগুলি নেভানো হয়। প্রতিদিনই কলাইকুন্ডা বায়ুসেনা ঘাঁটি থেকে প্রশিক্ষণরত পাইলটরা যুদ্ধ–বিমান নিয়ে উড়ে যান। দুধকুন্ডির জঙ্গলে বা ওড়িশা উপকূলে নির্দিষ্ট লক্ষ্যে বোমা নিক্ষেপ করে আবার ফিরে আসেন। এর আগে মিগ–‌২৭ ও মিগ–‌২৯ যুদ্ধ–বিমান বেশ কয়েকবার যান্ত্রিক গোলযোগের কারণে ভেঙে পড়ায় তা বাতিল করে সুখোই এবং আই এ এফ হক ব্যবহার করা হচ্ছে।

সূত্র: আজকাল

Post a Comment